প্রথম পাতা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১৬

প্রকাশিত হয়েছে: ১৩-১১-২০১৯ ইং ০২:৫৬:৪৭ | সংবাদটি ২১২ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা অভিমুখী তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেসের সঙ্গে সিলেট থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখী ‘উদয়ন এক্সপ্রেস’ ট্রেনের সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় ১৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। গত সোমবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার মন্দভাগ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার ৮ ঘণ্টা পর ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং চট্টগ্রাম-সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ চালু হয়েছে।
প্রশাসনের হিসেব অনুযায়ী মারা গেছেন ১৬জন। তবে এ হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। হতাহত সবাই উদয়নের ট্রেনের যাত্রী। এ ঘটনায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য, আইনমন্ত্রী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, রেলওয়ে মহাপরিচালক, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনার পর থেকেই ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট, নোয়াখালী-ঢাকা, নোয়াখালী-সিলেট রেলপথে সবধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। রেলওয়ে ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাছাড়া সেনাবাহিনী, বিজিবি, ফায়ারসার্ভিস, পুলিশ, জেনেটিক কম্পিউটার একাডেমি মুক্ত স্কাউট গ্রুপ, সিডিসি মুক্ত স্কাউট গ্রুপ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করে।
রেলওয়ে স্টেশন, প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃগর ট্রেন ঢাকাগামী তুর্ণা নিশীথা মঙ্গলবার ভোর রাত ২টা ৪৮মিনিটে শশীদল রেলওয়ে স্টেশন অতিক্রম করে মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনের দিকে রওয়ানা করে। মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার স্টেশনে প্রবেশের আগেই আউটারে থামার জন্য লালবাতি জ্বালিয়ে সংকেত দেয়। অপরদিকে, সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস কসবা রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনে প্রবেশপথে স্টেশন মাস্টার তাকে মেইন লাইন ছেড়ে দিয়ে ১ নম্বর লাইনে আসার সংকেত দেয়। ওই ট্রেনের চালক ১ নম্বর লাইনে প্রবেশ করার সময় ছয়টি বগি প্রধান লাইনে থাকতেই অপর দিক থেকে আসা তুর্ণা নিশীথা ট্রেনের চালক সিগনাল (সংকেত) অমান্য করে দ্রুতগতিতে ট্রেন চালায়। এ সময় উদয়ন ট্রেনের মাঝামাঝি তিনটি বগির সাথে তূর্ণা নিশীথার ইঞ্জিনের সংঘর্ষ হয়। এতে উদয়ন ট্রেনের তিনটি বগি দুমড়ে মুচড়ে যায়। উদয়ন ট্রেনের ১৬জন যাত্রী মারা যায় এবং শতাধিক নারী পুরুষ যাত্রী আহত হয়েছে। নিহতদের পরিচয় জানতে বায়েক শিক্ষা সদন উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি অস্থায়ী তথ্যকেন্দ্র খোলা হয়েছে।
মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. জাকের হোসেন চৌধুরী বলেন, নিশীথা ট্রেনটি আউটারে মেইন লাইনে থামার সংকেত দেয়া হয়েছিল। উদয়ন ট্রেনটিকে মেইন লাইন থেকে ১ নং লাইনে আসার সংকেত দেয়া হয়েছিল। সেই হিসাবে উদয়ন ট্রেন ১ নম্বর লাইনে প্রবেশ করছিল। এ সময় নিশীথা ট্রেনের চালক সংকেত অমান্য করে উদয়ন ট্রেনের উপর উঠে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়।
দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানের জন্য তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। এছাড়া, রেল বিভাগের পক্ষ থেকে পৃথক একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ৪০টি মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে মামলা ॥ ৩টি ডাম্পিংয়ে
  • ‘বয়কট মিয়ানমার ক্যাম্পেইন’ শুরু
  • হাকিমপুরী জর্দা বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ
  • পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি : রাষ্ট্রপতি
  • অবৈধ সম্পদ যেখানেই থাকুক ভোগ করতে দেব না: দুদক চেয়ারম্যান
  • বিজয়ের মাস
  • সতর্ক থাকুন যাতে কোন শিশু, নারী নির্যাতিত না হয় : প্রধানমন্ত্রী
  • বিভাগীয় কমিশনারের সাথে সিলেট চেম্বার নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়
  • কয়েক বছরের মধ্যেই নগরীর বস্তিসমূহের আধুনিকায়ন হবে
  • নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস আজ
  • সিলেটের নারীদের এমনভাবে এগিয়ে যেতে হবে যাতে অন্য বিভাগের জন্য অকুরণীয় হয় ....... এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম
  • গোয়াইনঘাটে স্ত্রী হত্যায় স্বামী জেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পিতার মৃত্যু
  • দিল্লিতে কারখানায় অগ্নিকান্ডে ৪৩ জনের মৃত্যু
  • আসক্তি কাটছে গৃহিণীদের পেঁয়াজ চড়া দামে স্থিতি ছাদেক আহমদ আজাদ
  • গণহত্যার শুনানিতে অংশ নিতে দেশ ছাড়লেন সু চি
  • সচিবালয়ের চারপাশ হর্ন বিহীন এলাকা ঘোষণা
  • ফেসবুক থেকে মিথিলা-ফাহমির ছবি সরাতে হাইকোর্টের নির্দেশ
  • মৌলভীবাজারে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত
  • আদালতের নির্দেশে কমলগঞ্জে ৫ মাস পর কবর থেকে তরুণীর লাশ উত্তোলন
  • বিডিনিউজ প্রধান সম্পাদকের ব্যাংক হিসাব জব্দ
  • Developed by: Sparkle IT