প্রথম পাতা নগর সম্প্রসারণ বিষয়ক মতবিনিময় সভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন

সিটি কর্পোরেশনের পরিধি বাড়লে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠনের সুযোগ সৃষ্টি হবে

প্রকাশিত হয়েছে: ১৭-১১-২০১৯ ইং ০৩:৪৬:৩৯ | সংবাদটি ২৮১ বার পঠিত

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) বিদ্যমান আয়তন ২৬ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটারের সাথে ৫৭ দশমিক ৬৩ বর্গকিলোমিটার এলাকা সম্প্রসারণযোগ্য বলে মত দিয়েছে সিলেট জেলা প্রশাসন। অবশ্য, সিসিকের পক্ষ থেকে বিদ্যমান আয়তনের  সাথে আরো ১৬০ দশমিক ৬২ বর্গ কিলোমিটারের পরিধি যুক্ত সিসিকের আয়তন ১৮৭ দশমিক ১২ বর্গকিলোমিটারে উন্নীত করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল।

গতকাল শনিবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপির উপস্থিতিতে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের আয়তন সম্প্রসারণ বিষয়ক মতবিনিময় সভায় সিলেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান এই সংক্রান্ত একটি ভিডিও চিত্র উপস্থাপন করেন। ভিডিও চিত্রে সম্প্রসারণযোগ্য ৫৭ দশমিক ৬৩ বর্গকিলোমিটার এলাকার মধ্যে ৯টি পূর্ণ মৌজা ও ১০টি মৌজার আংশিক প্রস্তাব করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পরিধি বাড়ানোর ব্যাপারে কারো দ্বিমত নেই। কারণ পরিধি বাড়লে সেবার মানও বাড়বে । আরো বেশি মানুষকে নাগরিক সুবিধা দেয়া সম্ভব হবে । এতে অধিকতর রাজস্ব আদায়ও হবে। তিনি বলেন, খুলনা ও রাজশাহীতে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ থাকলেও আমাদের সিলেটে নেই। অথচ দেশের সবগুলো বড় শহরে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রয়েছে। শহর বড় হলে এ দাবি জোরালো হবে। শহর বড় হলে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠনেরও সুযোগ সৃষ্টি হবে।

মন্ত্রী ড. মোমেন আরো বলেন, এই আলোচনা শেষ আলোচনা নয়,  বর্তমান সরকার জনগণের সরকার। জনগণের মতামত নিয়েই নগর সম্প্রসারণ করবে। তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসন পৃথক প্রস্তাবনা তৈরি করেছে। সবগুলো প্রস্তাবনা পাওয়ার পর যাচাই-বাছাই করে সিটি কর্পোরেশন সম্প্রসারণের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আমরা চাই, ব্যক্তি বিশেষের জন্য নয়, জনগণকে সম্পৃক্ত করে সবার জন্য সেবা নিশ্চিত করতে।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসন আয়োজিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন- সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট ৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, কান্দিগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নিজাম উদ্দিন, টুকেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শহীদ আহমদ, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আফছর আহমদ, খাদিমনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ দিলোয়ার হোসেন, কুচাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম, বরইকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাবিব হোসেন, মোল্লারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মকন মিয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিকসহ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, ২০০২ সালে ২৬ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটার আয়তন নিয়ে যাত্রা শুরু করে সিসিক। ২০১৪ সালের জুলাই মাসে আয়তন বাড়ানোর উদ্যোগ নেয় নগর কর্তৃপক্ষ। দীর্ঘদিন এনিয়ে পর্যালোচনার পর এবার প্রকাশ্যে এসেছে নগর সম্প্রসারণের বিষয়টি। এ নিয়ে গতকাল শনিবার মতবিনিময় করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

এর আগে সিটি কর্পোরেশনের আশপাশ এলাকার মধ্যে উত্তরে খাদিমনগর চা-বাগান, দলদলি চা-বাগান ও সালুটিকর, দক্ষিণে শুড়িগাঁও, মামুদপুর, রুস্তমপুর, কালাইরচক, ডুমশ্রী ও ছাত্তিঘর, পশ্চিমে চাতল, উত্তর ঘোপাল, কসকালিয়া, বাওনপুর, ইনায়েতপুর, হরিপুর, রঘুপুর, দর্শা, মেদিনীমহল, লক্ষ্মীপাশা, হাজরাই, তালিবপুর ও লক্ষ্মীপুর এবং পূর্বে বটেশ্বর, বাঘা, হাতিমনগর, আমদরপুর, উত্তরভাগ, বাগরখলা, হিলালপুর, মাইজভাগ, দাউদপুর ও তিরাশিগাঁও মৌজাকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছিলো। এই প্রস্তাবটি পাস হলে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনার মধ্যে সিলেট সদর উপজেলার খাদিমপাড়া, টুলটিকর, টুকেরবাজার, খাদিমনগর ও কান্দিগাঁও ইউনিয়ন এবং দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কুচাই, বরইকান্দি ও মোল্লারগাঁও ইউনিয়ন ছিল।

তবে, গতকাল শনিবার জেলা প্রশাসনের প্রস্তাবনায় চা বাগান ও কৃষি এবং একেবারেই গ্রামীণ এলাকাগুলোকে সম্প্রসরাণযোগ্য নয় বলে মতামত দেয়া হয়। সদর উপজেলার টুলটিকর, টুকেরবাজার, খাদিমপাড়া, দক্ষিণ সুরমার কুচাই, বরইকান্দি ইউনিয়নের বিভিন্ন মৌজা অন্তর্র্ভুক্ত করার প্রস্তাব এলেও কান্দিগাঁও ও খাদিমনগর ইউনিয়নের কোনো মৌজার নাম আসেনি। জেলা প্রশাসন বর্তমান ২৬ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটারের সঙ্গে যুক্ত করে ৫৭ দশমিক ৬৩ বর্গ কিলোমিটার পরিধিকে উপযুক্ত মনে করেছে। এ নিয়ে আরো আলোচনা ও মতবিনিময় হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • কয়েক বছরের মধ্যেই নগরীর বস্তিসমূহের আধুনিকায়ন হবে
  • নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস আজ
  • সিলেটের নারীদের এমনভাবে এগিয়ে যেতে হবে যাতে অন্য বিভাগের জন্য অকুরণীয় হয় ....... এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম
  • গোয়াইনঘাটে স্ত্রী হত্যায় স্বামী জেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পিতার মৃত্যু
  • দিল্লিতে কারখানায় অগ্নিকান্ডে ৪৩ জনের মৃত্যু
  • আসক্তি কাটছে গৃহিণীদের পেঁয়াজ চড়া দামে স্থিতি ছাদেক আহমদ আজাদ
  • গণহত্যার শুনানিতে অংশ নিতে দেশ ছাড়লেন সু চি
  • সচিবালয়ের চারপাশ হর্ন বিহীন এলাকা ঘোষণা
  • ফেসবুক থেকে মিথিলা-ফাহমির ছবি সরাতে হাইকোর্টের নির্দেশ
  • মৌলভীবাজারে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত
  • আদালতের নির্দেশে কমলগঞ্জে ৫ মাস পর কবর থেকে তরুণীর লাশ উত্তোলন
  • বিডিনিউজ প্রধান সম্পাদকের ব্যাংক হিসাব জব্দ
  • খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে কোনো টালাবাহানা মেনে নেয়া হবে না
  • জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণ সমাজ বিনির্মাণে চলচ্চিত্রের গুরুত্ব রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী
  • বড় বড় রুই-কাতলাও এখন দুদকের জালে : চেয়ারম্যান
  • সাংবাদিকদের সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর মোর্শেদ চৌধুরী
  • অসাম্প্রদায়িক দক্ষিণ এশিয়া গঠনে নারীর ভূমিকা অপরিহার্য : পরিকল্পনামন্ত্রী
  • চার কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় সিলেট পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে তোলপাড়
  • মৌলভীবাজার মুক্ত দিবস আজ
  • সৌদিতে নির্যাতিতা জগন্নাথপুরের কিশোরীর আকুতি দেশে ফেরার
  • Developed by: Sparkle IT