সম্পাদকীয় সব ধন সম্পদের বা ঐশ্বর্য্যরে মূল উৎপত্তি হয়েছে পরিশ্রম থেকে। -জন লক।

সড়ক পরিবহন আইন

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-১১-২০১৯ ইং ০০:২১:৩১ | সংবাদটি ১১৪ বার পঠিত

বেশ কিছু দিন ধরে জাতীয় পর্যায়ে তোলপাড় করা ‘ইস্যু’ পেঁয়াজ। এরপরে সংযুক্ত হলো লবণ। এগুলো নিয়ে যেন ঘুম হারাম অবস্থা সকলের। আর এসবের সঙ্গে রয়েছে আরেকটি ইস্যু- পরিবহন। পরিবহন আইন কার্যকর হয়েছে এবং তার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে সড়কপথে নৈরাজ্য। আইন কার্যকরে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সরকার। আর পরিবহন মালিক-শ্রমিক আইনটি মানছে না। তারা সভা সমাবেশ করছে, ধর্মঘট করছে। সব মিলিয়ে সড়ক যোগাযোগ খাতে একটা অরাজকতা চলছে। আর তার শিকার হচ্ছে যাত্রী সাধারণ। পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকারের নমনীয় হওয়ার কোনো লক্ষণ এখন পর্যন্ত চোখে পড়ছে না। সব মিলিয়ে সড়কে সুশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হোক, এটাই সকলের প্রত্যাশা।
সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ কার্যকর হয়েছে গত সোমবার। বিভিন্ন সড়কে ভ্রাম্যমাণ আদালত আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে, রুজু করা হচ্ছে মামলা। আর এই অভিযান এবং পরিবহন আইনের বিরোধীতা করছে শ্রমিক-মালিকগণ। তারা আইন কার্যকরের দিন থেকে বিভিন্ন স্থানে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে চলেছে। জাতীয় সংসদে এই আইনটি পাস হওয়ার পর থেকেই পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা এর প্রতিবাদ করে আসছে। অর্থাৎ জাতীয় সংসদে বছর খানেক আগে আইন পাস হওয়ার পর থেকে তারা এর বিরোধীতা করে আসছে। আর এতোদিন ধরেই তারা নানাভাবে বিশৃঙ্খলা-নৈরাজ্য সৃষ্টির পায়তারা চালাচ্ছে। অপরদিকে সরকার বলছে, কোন অবস্থাতেই এই আইন প্রত্যাহার করা হবে না। সড়কে দীর্ঘদিন ধরে যে ‘অরাজকতা’ চলছে, তার অবসান ঘটাতেই আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে বলে সরকার দাবী করছে। তাদের বক্তব্য হচ্ছে- [আইনে বৈধ কাগজপত্র নিয়ে দক্ষ চালক দ্বারা সড়কে যানবাহন চালানোর বিধান রাখা হয়েছে। এই বিধান না মানলে শাস্তির কথা উল্লেখ রয়েছে আইনে। তাই এই আইন বাতিলের দাবী জানানো মানে পক্ষান্তরে যাচ্ছেতাইভাবে ভাঙ্গাচুরা যানবাহন নিয়ে অদক্ষ চালক দ্বারা যাত্রী পরিবহন করে অহরহ দুর্ঘটনা ঘটানোর লাইসেন্স দিয়ে দেয়া।]
সড়ক পথে যানবাহন চলাচলে নিয়মনীতির বালাই নেই। সড়ক মহাসড়কে যে যেভাবে পারছে যানবাহন চালাচ্ছে। হেলপার চালাচ্ছে যাত্রীবাহী বাস, চলছে মেয়াদ উত্তীর্ণ গাড়ি, ফিটনেস বিহীন যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে দিন দিন, চলছে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি। এই সব কারণে সড়ক পথে ঘটছে অহরহ দুর্ঘটনা। ঝরছে তাজা প্রাণ। এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য প্রণয়ন করা হয়েছে সড়ক পরিবহন আইন। এই আইনটি কার্যকর করার দায়িত্ব সরকারের। কারণ সরকার নিয়ন্ত্রিত সড়ক পথে অরাজকতা হবে, কিংবা সরকারী পথে সরকার পরিচালিত বিআরটিসি বাস চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হবে, এটা মেনে নেয়া যায় না।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT