প্রথম পাতা গোয়াইনঘাট সীমান্ত

অস্ত্রের পর এবার মোবাইল সেট চোরাচালানের নিরাপদ রুট

কাউসার চৌধুরী প্রকাশিত হয়েছে: ২২-১১-২০১৯ ইং ০৩:২৭:০৮ | সংবাদটি ১৫০ বার পঠিত

অস্ত্র চোরাচালানের পর এবার গোয়াইনঘাট সীমান্ত মোবাইল সেট চোরাচালানের নিরাপদ রুটে পরিণত হয়েছে। কেবল মোবাইল সেটই নয় সীমান্ত দিয়ে বিভিন্ন মালামাল আনছে এই চোরাচালান চক্র। চোরাচালানের মোবাইল সেটের চালান ছিনতাইয়ের পর বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় চলছে। ছিনতাইয়ে কেবল পুলিশ কর্মকর্তাই নয়, কথিত এক সাংবাদিকসহ সংঘবদ্ধচক্র জড়িত রয়েছে। পুরো বিষয়টির ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন পর্যায় থেকে অনুসন্ধান চলছে। ছিনতাইয়ে জড়িত পুলিশ কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে মহানগর পুলিশ। এএসআই জাহাঙ্গীরসহ ৪ জনকে ৩ দিনের রিমান্ডেও নেয়া হয়েছে। নগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা সিলেটের ডাককে জানিয়েছেন, চোরাচালানীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গ্রেফতারকৃতদেরকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।
অস্ত্র নিয়ে দেশজুড়ে আলোচনা:
সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্ত এলাকা এবার হঠাৎ করেই অস্ত্র চোরাচালানের নিরাপদ রুট হিসেবে দেশজুড়ে আলোচনায় আসে। গত সেপ্টেম্বরের শুরুতে অস্ত্র চোরাচালানের মূল হোতা আরব আলীকে (৫০) গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর বিষয়টি নিয়ে সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তুলে ধরেন। গত দু’বছর ধরে আরব আলীর নেতৃত্বাধীন একটি চোরাচালান চক্র অস্ত্র ব্যবসা করে আসছিল। ১০ সেপ্টেম্বর গ্রেফতারের পূর্ব পর্যন্ত বিছনাকান্দি সীমান্ত দিয়ে ৪ চালানে ১০টি অস্ত্র নিয়ে আসে চক্রটি। ভারতীয় নাগরিক বারিক সবজির ব্যাগে করে অস্ত্রগুলো এনে আরব আলীর নিকট বিক্রি করে যেত। আরব আলী তার নির্ধারিত লোকের নিকট পৌঁছে দিতেন অত্যাধুনিক অস্ত্র। সুনামগঞ্জ জেলা যুবদল নেতা আনসার মিয়া ও জগন্নাথপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আব্দুস শহীদ এই চোরাচালানে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত। এই দু’জনসহ ৩ জনকে দু’টি রিভলবারসহ গ্রেফতার করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। অস্ত্র চোরাচালানের নিরাপদ রুট হিসেবে দেশজুড়ে বিছনাকান্দি সীমান্তের নাম আলোচনায় আসে।
এবার মোবাইল সেটের চালান:
অস্ত্র চোরাচালানের ঘটনা ধরা পড়ার প্রায় ৩ মাসের মাথায় এসে মোবাইল সেট চোরাচালানের বিষয়টি ধরা পড়ে। গত শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর সুবিদবাজারে ফিজা এন্ড কোং এর ফ্যাক্টরির সামন থেকে ৭০০ মোবাইল সেট ছিনতাইয়ের পর বিষয়টি জনসম্মুখে চলে আসে। পুলিশের দায়ের করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গোয়াইনঘাটের সালুটিকর এলাকা থেকে এক্সিও কারযোগে শহরে আসার পথে গতিরোধ করে। এরপর কারকে ধাওয়া করে সুবিদবাজারে নিয়ে যায়। সুবিদবাজারে যাওয়ার পর কারে থাকা দু’জন পালিয়ে যায়। ছিনতাইকারীরা এক্সিও কারের পেছন থেকে ৭০০ মোবাইল সেটের চালান নিয়ে যায়। সাম্প্রতিককালে এটি বড় ধরনের চালান বলে পুলিশ জানিয়েছে। তবে এই চালানই প্রথম নয় এর আগেও এই চক্রটি কয়েকটি মোবাইল সেটের চালান সিলেটে নিয়ে আসে বলে সূত্র জানিয়েছে।
তাদের নেটওয়ার্ক বিশাল:
পুলিশের দায়ের করা মামলা দু’টিতেই এই মোবাইল সেট চালানের মালিক হিসেবে জগন্নাথপুরস্থ সৈয়দপুরের বাসিন্দা সৈয়দ আরিফ আহমদের (৩৫), নাম উল্লেখ করা হয়। তিনি বর্তমানে নগরীর শামীমাবাদের খান সেন্টারের ২য় তলায় বসবাস করছেন। মৃদুল ও জিল্লু মিয়া নামে তার দুজন সহযোগী রয়েছেন। মামলা দু’টিতে আরিফ ও মৃদুলের নাম উল্লেখ করা হলেও জিল্লু মিয়ার নাম উল্লেখ করা হয়নি। সূত্র বলেছে মৃদুল নগরীর শেখঘাট ও জিল্লু মিয়া সৈয়দপুরের বাসিন্দা। গত মাসে এই চক্রটি গোয়াইনঘাট সীমান্ত দিয়ে আরেকটি চালান নিয়ে এসেছিল। মামলা দু’টির বাদী এস.আই অনুপ কুমার চৌধুরী জানান, একটি চালানসহ সৈয়দ আরিফ একবার চট্টগ্রামে ধরা পড়েছিলেন বলে পুলিশের নিকট খবর রয়েছে। মোবাইল সেটের চালান সীমান্ত থেকে নিরাপদে গন্তব্য পৌঁছাতে তাদের রয়েছে বিশাল নেটওয়ার্ক। সিলেট, ছাতক, সুনামগঞ্জ এমনকি রাজধানীতেও তাদের নেটওয়ার্ক রয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে। পুলিশের এক পদস্থ কর্মকর্তা জানান, আরিফ চোরাচালানী চক্রের সদস্য। তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হলে চোরাচালানের ব্যাপারে অনেক তথ্য পাওয়া যাবে। এদিকে, মামলার এজাহারে বলা হয়, আরিফসহ ৫জন মিলে দীর্ঘদিন যাবৎ চোরাচালানের মাধ্যমে মোবাইল সেটসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে আসছে। তবে মালামালের ধরণ উল্লেখ করা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, বড় ধরনের কোনো চোরাচালানের সাথে এই চক্রের সম্পর্ক রয়েছে।
পুলিশের সাথে সাংবাদিকও
এদিকে, মোবাইল সেটের চালান ছিনতাইয়ে নগর পুলিশের এএসআই জাহাঙ্গীর হোসেনের সাথে থাকা ৪ জনের মধ্যে এক সাংবাদিক ছিলেন। মোশারফ হোসেন খান (৩৮) নামের এই কথিত সাংবাদিকের বাড়ি নেত্রকোনার সদর উপজেলার প্রফেসর পাড়ায়। সে ঐ পাড়ার ৭৭নং বাসার মৃত আব্দুল হামিদের পুত্র। মামলা দু’টির এজাহারে কথিত এই সাংবাদিক মোশারফ হোসেন খানকে সিলেটের স্থানীয় ‘দৈনিক সুদিন পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এএসআই জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বেই ৪ জন মিলে ৭০০ মোবাইল সেট ছিনতাই করে বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। অভিযান চালিয়ে ২৭৯টি সেট উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় এএসআই জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগীসহ ৪ জনকে। এই ৪ জনসহ চোরাচালানীর হোতাদের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার কোতোয়ালী থানায় পৃথক মামলা দায়ের করা হয়। কোতোয়ালী থানার মামলা নং ৪২ ও ৪৩। এসআই অনুপ কুমার চৌধুরী মামলা দু’টি দায়ের করেন।
পুলিশ জিরো টলারেন্সে
চোরাচালানের মোবাইল সেটের চালান মহানগর পুলিশের এ.এস.আই জাহাঙ্গীর হোসেনের নেতৃত্বে ছিনতাই হয়েছে এমন সংবাদ পাওয়ার পরই তৎপর হয় মহানগর পুলিশ। নগর পুলিশের শীর্ষ পর্যায় থেকে কঠোর নির্দেশনা পেয়ে অপরাধে সম্পৃক্তদের সন্ধানে হন্যে হয়ে মাঠে নামে পুলিশ। এক পর্যায়ে হাতেনাতে মালামালসহ ঘটনার জড়িত ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এর মধ্যে এএসআই জাহাঙ্গীর পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ের ভূমি শাখায় কর্মরত। ঘটনা নিশ্চিত হওয়ার পরই এএসআই জাহাঙ্গীরকে তাৎক্ষণিক সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্সে পুলিশ। অপরাধী যেই হোক তাকে কোনো ছাড় দেয়া হবে না’ এমন সিদ্ধান্ত নগর পুলিশের শীর্ষ পর্যায়ের।
অভিযান চলছে :
সিলেট মহানগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা সিলেটের ডাককে বলেন, চোরাচালানীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। যেকোনো ভাবেই হোক এই চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করা হবে। আরিফসহ চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করা গেলে এদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে। তবে এরা বড় ধরনের চোরাচালানের সাথে জড়িত বলেও তথ্য পাওয়া গেছে।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ২০৩০ সালের আগেই দেশ থেকে কুষ্ঠ রোগ নির্মূল করতে চাই --------------প্রধানমন্ত্রী
  • আওয়ামী লীগে আর দূষিত রক্ত রাখা হবে না
  • ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস আজ
  • গোলাপগঞ্জ মুক্ত দিবস আজ
  • মহীয়সী নারী বেগম রাবেয়া খাতুন চৌধুরীর ত্রয়োদশ মৃত্যুবার্ষিকী আজ
  • জাতিসংঘের আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যার শুনানি শুরু
  • তৃণমূল নেতা কর্মীরা আওয়ামী লীগের প্রাণ : ওবায়দুল কাদের
  • ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএনপি
  • বিজয়ের মাস
  • ‘দেশের চালিকা শক্তির মূল উৎস রাজস্ব আয়’
  • ‘জয় বাংলা’ ১৬ ডিসেম্বর থেকে জাতীয় স্লোগান
  • মানবাধিকার সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টিতে গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর
  • ৪০টি মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে মামলা ॥ ৩টি ডাম্পিংয়ে
  • ‘বয়কট মিয়ানমার ক্যাম্পেইন’ শুরু
  • হাকিমপুরী জর্দা বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ
  • পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি : রাষ্ট্রপতি
  • অবৈধ সম্পদ যেখানেই থাকুক ভোগ করতে দেব না: দুদক চেয়ারম্যান
  • বিজয়ের মাস
  • সতর্ক থাকুন যাতে কোন শিশু, নারী নির্যাতিত না হয় : প্রধানমন্ত্রী
  • বিভাগীয় কমিশনারের সাথে সিলেট চেম্বার নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়
  • Developed by: Sparkle IT