প্রথম পাতা

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর গোলায় ২ রোহিঙ্গা নারী নিহত: এমপি

প্রকাশিত হয়েছে: ২৬-০১-২০২০ ইং ০৩:১৭:৪৩ | সংবাদটি ১৫৮ বার পঠিত
Image

ডাক ডেস্ক : জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে জরুরি ভিত্তিতে চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেওয়ার দুই দিনের মাথায় দেশটির সেনাবাহিনীর নিক্ষিপ্ত গোলায় গর্ভবতী একজনসহ দুই রোহিঙ্গা নারী নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে।
গতকাল শনিবার রোহিঙ্গাদের একটি গ্রামে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর গোলাবর্ষণে ওই দুই নারী নিহত ও আরও সাত জন আহত হয়েছে বলে দেশটির একজন পার্লামেন্ট সদস্য ও একজন গ্রামবাসীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলীয় শহর বুথিডাং থেকে নির্বাচিত পার্লামেন্ট সদস্য মং কিয়াও জান জানান, গভীর রাতে নিকটবর্তী ব্যাটেলিয়ন থেকে ছোড়া গোলা কিন তায়ুং গ্রামে আঘাত হানে।
টেলিফোনে রয়টার্সকে তিনি বলেন, “কোনো যুদ্ধ ছাড়াই একটি গ্রামে কামানের গোলা নিক্ষেপ করেছে তারা, সেখানে কোনো লড়াই ছিল না।”
চলতি বছরে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার সেখানে বেসামরিকদের হত্যা করা হল বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন তায়ুং থেকে মাইলখানেক দূরে বসবাসকারী রোহিঙ্গা গ্রামবাসী সো তুন ওও ফোনে রয়টার্সকে গোলার বিস্ফোরণে দুটি বাড়ি ধ্বংস হওয়ার কথা জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, “মিলিটারিরা সব সময় ভারী অস্ত্র থেকে গোলাবর্ষণ করে। যে এলাকাকেই সন্দেহজনক মনে হয় সেখানেই ভারী অস্ত্রের গোলাবর্ষণ করে তারা। আমরা ভয়ে থাকলেও অন্য কোথাও পালিয়ে যাওয়া অসম্ভব।” এ হামলার দায় অস্বীকার করেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। হামলার দায় বিদ্রোহীদের দিয়েছে তারা। ভোররাতে বিদ্রোহীরা একটি সেতুতে আক্রমণ চালিয়েছিল বলে জানিয়েছে তারা।
রাশিয়ার সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক ভিকে-তে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে মিয়ানমার সেনাবাহিনী, দুই রোহিঙ্গা নারী নিহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করলেও এর জন্য আরাকান আর্মিকে দায়ী করেছে। দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় আরাকান আর্মির গোলা ওই গ্রামে আঘাত হেনেছে বলে দাবি করেছে তারা।
হতাহতের এ ঘটনা নিয়ে মন্তব্যের জন্য ফোন করা হলেও মিয়ানমারের দুই সামরিক মুখপাত্র জবাব দেননি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।
রাখাইনে মিয়ানমারের সরকারি বাহিনী এক বছরেরও বেশি সময় ধরে স্থানীয় নৃগোষ্ঠীগত বিদ্রোহী বাহিনী আরাকান আর্মির বিরুদ্ধে লড়াই করছে।
২০১৭ সালে এই রাজ্যের উত্তরাঞ্চলে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর নিষ্ঠুর দমনাভিযান চালিয়েছিল। তখন প্রায় সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা জান বাঁচাতে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। গণহত্যার অভিপ্রায় নিয়ে ওই দমনাভিযানটি চালানো হয়েছিল বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। এখনও রাখাইনে ছয়-সাত লাখ রোহিঙ্গা রয়েছে। তাদের অনেকেই জাতিবিদ্বেষের মতো পরিস্থিতিতে আটকা পড়ে আছেন। তারা মুক্তভাবে চলাচল করতে পারছেন না, এমনকী হাসপাতালে ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও যেতে পারছেন না।
সম্প্রতি রাখাইনের স্থানীয় সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সদস্যদের নিয়ে গঠিত বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির (এএ) সঙ্গে দেশটির সামরিক বাহিনীর লড়াই শুরু হয়েছে। এ লড়াইয়ে বহু লোক নিহত ও হাজার হাজার লোক বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। রোহিঙ্গারা এই লড়াইয়ের মাঝে আটকা পড়ে গেছে।
রাখাইন রাজ্যে মুক্তভাবে চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ থাকায় লড়াই শুরু হলে বৌদ্ধ প্রতিবেশীদের চেয়ে রোহিঙ্গাদের পালানো সুযোগ সীমিত হয়ে পড়েছে বলে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে।
এই পরিস্থিতিতে নেদারল্যান্ডের দ্য হেগ-ভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে) বৃহস্পতিবার মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ওপর যেন আর কোনো নৃশংসতা না হয় তা নিশ্চিত করে তাদের সুরক্ষা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।
নভেম্বরে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ এনে আইসিজেতে একটি অভিযোগ দাখিল করে। ওই অভিযোগ ও গাম্বিয়ার একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি মিয়ানমারকে কথিত অপরাধের আলামত সংরক্ষণসহ চার দফা অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • আল্লামা শফীকে নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি আলাউদ্দিন জিহাদী গ্রেফতার
  • আইনজীবী তালিকাভুক্তির লিখিত পরীক্ষা স্থগিত
  • সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে, বেড়েছে সুস্থতা
  • শিগগিরই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হবে
  • স্বাস্থ্য অধিদফতরের মালেক ড্রাইভার যেভাবে বিপুল সম্পত্তির মালিক
  • প্রচন্ড গরম ও দাম উঠানামার প্রভাব সিলেটের পেঁয়াজের বাজারে
  • রাস্তায় পড়ে গুরুতর অসুস্থ মুয়াজ্জিন হাসপাতালে গিয়েই মারা গেলেন
  • অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমতি দিলো সরকার
  • খালেদা জিয়ার ৪ মামলার স্থগিতাদেশ আপিলেও বহাল
  • প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পেঁয়াজ আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার
  • সিলেটে জ্যৈষ্ঠের গরম আশ্বিনে
  • শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে : প্রধানমন্ত্রী
  • ইউএনও ওয়াহিদা জনপ্রশাসনে বদলি, স্বামী স্বাস্থ্যে
  • কমিটিতে পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের অবশ্যই মূল্যায়ন করতে হবে --------ওবায়দুল কাদের
  • ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩২ মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৬৭
  • সিলেটে পেঁয়াজের সরবরাহ স্বাভাবিক, দাম নিম্নমুখী
  • সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে বিজিবি-বিএসএফ একমত
  • ৫ দিন পর দেশে ঢুকলো ভারতীয় পেঁয়াজ
  • পরিবেশমন্ত্রী, মেয়র আরিফ ও দানবীর ড. রাগীব আলীসহ বিভিন্ন মহলের শোক
  • রাতারগুল ওয়াচ টাওয়ারে আজ থেকে পর্যটক উঠা সম্পূর্ণ বন্ধ
  • Image

    Developed by:Sparkle IT