মহিলা সমাজ রেসিপি

চিংড়ি রেসিপি

তানিজা ইসলাম প্রকাশিত হয়েছে: ০৪-০২-২০২০ ইং ০১:৩৭:৫০ | সংবাদটি ১৫১ বার পঠিত

চিংড়ি কোফতা কারি
চিংড়ি পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। চিংড়ি দিয়ে কত রকমের মজাদার খাবার তৈরি করা হয়, যেমন মালাইকারি, স্যুপ, ভুনা, ভর্তা আরও কত কী! কিন্তু চিংড়ি কোফতা কারি কখনও ট্রাই করেছেন কি? কোফতা মূলত দক্ষিণ এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্যের ডিশ। চিকেন বা বিফ দিয়েই কোফতার প্রচলন বেশি। চিংড়ি কোফতা একটু ভিন্নধর্মী, স্বাদের পরিবর্তন আনতে নতুন কিছু ট্রাই করতেই পারেন। যারা একটু ঝাল ঝাল কারি পছন্দ করে, তাদের জন্য এটা একদম পারফেক্ট। মেহমানদারীতে বা কোনো অকেশনে নতুন কিছু দিয়ে আপ্যায়ন হয়ে যাক। চলুন, চিংড়ি কোফতা কারির পুরো রেসিপিটি জেনে নেই!
চিংড়ি কোফতা কারি বানানোর নিয়ম
উপকরণ
চিংড়ি কিমা করা- ১ কাপ, বেসন- ১/২ কাপ, কাজুবাদাম কুঁচি- ১/২ কাপ, কাঁচামরিচ কুঁচি- ১ চা চামচ, হলুদ- ১/২ চা চামচ, লাল মরিচের গুঁড়া- ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি- ১ চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা- ৩ টেবিল চামচ, আদা বাটা- ২ চা চামচ, রসুন বাটা- ২ চা চামচ, ডিম- ১টি, টেলে রাখা জিরা গুঁড়া- ২ চা চামচ, টমেটো কুঁচি- ১/২ কাপ, লবণ- স্বাদমতো, ধনিয়াপাতা কুঁচি- ১ কাপ, পেঁয়াজের বেরেস্তা- সাজানোর জন্য, তেল- ৪ টেবিল চামচ
প্রস্তুত প্রণালী
১) প্রথমে চিংড়ি কিমার সাথে ধনিয়াপাতা কুঁচি, বেসন, কাজুবাদাম কুঁচি, কাঁচামরিচ কুঁচি, পেঁয়াজ কুঁচি ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন।
২) এবার একটি ডিম ফাটিয়ে নিয়ে মিশ্রণে যোগ করতে হবে যাতে কোফতার শেইপ দিতে সুবিধা হয়। ডিম এখানে বাইন্ডিং-এর কাজ করবে।
৩) এবার এই মিশ্রণটি থেকে গোল গোল বল বানিয়ে নিন।
৪) অন্যদিকে বড় একটি প্যানে তেল মিডিয়াম আঁচে গরম করে নিয়ে কোফতাগুলোকে ভেজে নিন, যতক্ষণ না বাদামী রং ধারণ করে। আপনি চাইলে ডীপ ফ্রাই করতে পারেন, আবার হালকা ভেজে নিতেও পারেন।
৫) কোফতা বানানো হয়ে গেলো। এবার গ্রেভির জন্য অন্য প্যানে পরিমাণমতো তেল নিন। কোফতা ভাজার তেল ব্যবহার করলে ফ্লেবার খুব ভালো আসবে।
৬) তেল গরম হলে তাতে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা ও রসুন বাটা দিয়ে কষিয়ে নিন।
৭) মসলা থেকে তেল ছেড়ে আসলে টমেটো কুঁচি, লাল মরিচের গুঁড়া, হলুদ গুঁড়া ও লবণ দিয়ে দিন। একটু পানি দিয়ে মসলাগুলো ভালোভাবে কষিয়ে নিতে হবে।
৮) এবার এই গ্রেভির মধ্যে আগে থেকে ভেজে রাখা কোফতাগুলো দিয়ে টেলে রাখা জিরা গুঁড়া ছড়িয়ে দিন।
৯) তারপর ঢাকনা দিয়ে ঢেকে অল্প আঁচে ৫ মিনিট দমে রাখুন।
১০) ঝোল ঘন হয়ে আসলে উপরে কাঁচামরিচ, পেঁয়াজের বেরেস্তা ও ধনিয়াপাতা কুঁচি দিয়ে দিন।
ব্যস, চিংড়ি কোফতা কারি রেডি! এটা দেখতে যেমন আকর্ষণীয়, তেমনি খেতেও সুস্বাদু। পোলাও, ফ্রায়েড রাইস ও নানের সাথে দারুণ মানিয়ে যাবে এই ডিশটি!


গুঁড়া চিংড়ি ভর্তা
গরম গরম ভাতের সঙ্গে ঝাল ঝাল চিংড়ি ভর্তা, শুনলেই জিভে পানি এসে যায়। পাতে ভর্তা থাকলে খাওয়াটা একদম জমে যায়, সাথে একটা শুকনো মরিচ আর পেঁয়াজ, ব্যস! ভর্তার প্রতি দুর্বলতাটা বাঙ্গালীর নতুন কিছু না। বাহারি পদের ভর্তা বাঙ্গালীর ঐতিহ্যও বটে। কিন্তু অনেকেই বলে বাসায় ভর্তা বানানো নাকি ঝামেলার! গুঁড়া চিংড়ি দিয়ে কিন্তু খুব সহজেই ভর্তা বানিয়ে নিতে পারেন। আর চিংড়ি তো আমাদের এমনিতেই পছন্দ। চলুন তাহলে জেনে নেই গুঁড়া চিংড়ি ভর্তার রেসিপিটি।
গুঁড়া চিংড়ি ভর্তা তৈরির প্রণালী
উপকরণ
ছোট চিংড়ি- ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজের কলি- ১/২ কাপ, পেঁয়াজ কুঁচি- ১ টেবিল চামচ, রসুন- ৪ কোঁয়া, শুকনো মরিচ- ৩ টি, ধনেপাতা কুঁচি- ৩ টেবিল চামচ, সরিষার তেল- ২ টেবিল চামচ, টেলে রাখা জিরে গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ, লবণ- পরিমাণমতো
প্রস্তুত প্রণালী
১) প্রথমে চিংড়ি মাছ বেছে ভালো করে ধুয়ে নিন। খোসা সহ রাখতে পারেন।
২) এরপর চিংড়িগুলো সরিষার তেলে মচমচে করে ভেজে তুলে রাখতে হবে। এই তেলেই ভর্তা হবে যাতে চিংড়ির সুঘ্রাণ থাকবে।
৩) কড়াইয়ে অবশিষ্ট সর্ষের তেলে পেঁয়াজের কলি, শুকনো মরিচ, থেঁতো করে রাখা রসুন কোঁয়া ও পেঁয়াজ কুঁচি ভালোভাবে ভেজে নিন। অনেকে ভর্তায় কাঁচামরিচের ফ্লেবার পছন্দ করেন, তারা শুকনো মরিচের বদলে কাঁচামরিচ দিতে পারেন।
৪) এবার টেলে রাখা জিরে গুঁড়ো সহ ভেজে রাখা বাকি উপকরণগুলো মিক্সার গ্রাইন্ডারে পেস্ট বানিয়ে নিন। খুব বেশি মিহি না হলেও হবে। চাইলে শিল নোড়া বা পাটায় বেঁটে নিতে পারেন।
কত্ত সহজ না! ঝটপট তৈরী হয়ে গেল মজাদার চিংড়ি ভর্তা। পরিবেশনের আগে বাটা চিংড়িকে ধনিয়া পাতা আর চিংড়ি ভাজার সরিষা তেল দিয়ে মাখিয়ে হাতের সাহায্যে গোল গোল করে সাজিয়ে নিন। গরম গরম ভাতের সাথে দারুণ জমে যাবে এই ভর্তাটি।

চকলেট ডোনাট
রেস্টুরেন্ট এবং বেকারিগুলোতে পাওয়া যায় এমন ডেজার্টের মধ্যে ডোনাট বেশ জনপ্রিয়। আড্ডার ফাঁকে কিংবা কফি ব্রেকে ডোনাট পেলে একদম জমে যায়। এর রয়েছে নানা ফ্লেভার, যেমন- অরেঞ্জ, ভ্যানিলা, চকলেট, কোকোনাট, ক্যারামেল আরও কত কি! একেকজনের পছন্দ একেক রকম। কিন্তু চকলেট ফ্লেবার পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। এটা তৈরি করা কিন্তু মোটেও কঠিন কিছু নয়, চাইলে মজাদার চকলেট ডোনাট আপনি বাসায়ই বানিয়ে নিতে পারেন। এছাড়া বাচ্চাদের টিফিনের জন্য এটা একদম পারফেক্ট। চলুন দেখে নিই এই হোমমেড ডোনাটের পুরো রেসিপিটি।
চকলেট ডোনাট তৈরির রেসিপি
উপকরণ
ময়দা- ৩ কাপ, গলানো মাখন- ১০০ গ্রাম, চিনি- ১৫০ গ্রাম, ডিম- ২টি, লবণ- সামান্য, ইস্ট- ১ চা চামচ, দুধ- ১/২ কাপ, ঘন চকলেট সস বা সিরাপ- পরিমাণমতো , সুইট বল- সাজানোর জন্য, তেল- ভাজার জন্য
প্রস্তুত প্রণালী
১) দুধ হালকা গরম করে তাতে অল্প লবণ, চিনি ও ইস্ট দিয়ে ঢেকে গরম জায়গায় রাখুন। ২০ মিনিট রাখলেই হবে।
২) এবার আরেকটি বড় বোলে ময়দা আর মাখন দিয়ে ভালো করে মেখে নিয়ে ইস্টের মিশ্রণটুকু ও ডিম দিয়ে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।
৩) মিশ্রণটি ১ ঘণ্টার জন্য ঢেকে রেখে দিন এবং খেয়াল করলে দেখবেন এটা বেশ ফুলে উঠেছে।
৪) এবার খামিরটিকে ময়দা ছিটিয়ে ছোট রুটির মতো বেলে ফেলুন। কাটার বা গোল ধারালো যেকোনো বোতলের ক্যাপ দিয়ে কেটে নিন ডোনাটের শেইপে।
৫) তারপর ডুবো তেলে ডোনাটগুলো ভাঁজতে হবে, হালকা রঙ হলে নামিয়ে নিন।
৬) ডোনাটগুলো একটু ঠাণ্ডা হলে ঘন চকলেট সসের মধ্যে ডুবিয়ে সুইট বল ছিটিয়ে পরিবেশন করুন। ফ্রিজে রেখে নিলে চকলেট সসের প্রলেপটি সেট হয়ে যাবে।
ব্যস, মজাদার চকলেট ডোনাট রেডি টু সার্ভ! দেখলেন তো, কত সহজে অল্প কিছু উপাদান দিয়ে মজাদার এই ডেজার্টটি তৈরি করে নেয়া যায়। ডোনাট বানানোর ক্ষেত্রে গার্নিশিং যত্ন করে করতে হবে কারণ দেখতে সুন্দর হলেই কিন্তু খাওয়ার আগ্রহ জাগে। আপনার পছন্দমতো সাজিয়ে নিন ডোনাটগুলো এবং প্রিয়জনকে তাক লাগিয়ে দিন।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT