স্বাস্থ্য কুশল

আপনার সন্তানের চোখের যত্ন নিন

মাহমুদ রাব্বি প্রকাশিত হয়েছে: ১০-০২-২০২০ ইং ০১:০৩:০১ | সংবাদটি ৫০৩ বার পঠিত
Image

আগে একটা সময় ছিলো যখন স্কুল পড়ুয়া ছেলে মেয়েদের চোখে চশমা দেখলে অনেকে করুণার দৃষ্টিতে দেখতো। আহারে এত কম বয়সে চোখ নষ্ট! এই রকম একটা ভাব থাকতো সবার কিন্তু বর্তমানে স্কুল পড়ুয়াদের চোখে প্রায়ই দেখা যায় চশমা। প্রেসক্রিপশন চশমা খুব খারাপ জিনিস কিন্তু বাধ্য হয়েই পড়ে ভুক্তভুগীরা। একবার চোখে পড়লে অপারেশন ছাড়া সেটা ছাড়ানো সম্ভব না। ভারী ফ্রেমের মোটা চশমা হলে তো কথাই নেই। এক মুহূর্তের জন্যেও খুলে রাখতে পারে না ঘুমানোর সময় ছাড়া ভুক্তভুগীরা। ছোটবেলা থেকে চোখের যত্ম নিলে হয়তো অনেক দিন চোখের দৃষ্টিশক্তি থাকবে প্রখর।
চক্ষু থাকিতে অন্ধ তাও আবার একমাত্র চোখের মণি আপনার ছোট বাবুটার চোখে যদি পড়াতে হয় ভারি ফ্রেমের চশমা তবে তো একটু বিষন্নটা আপনাকে পেতেই পারে। একটানা টিভি দেখা, পড়াশোনার চাপ, ভিডিও গেমের স্ক্রিনের দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে থাকা আজকের শিশুর রুটিন। একটু সচেতনতা এবং যত্ন আপনার সন্তানের চোখ দুটো সুরক্ষিত রাখবে বহুদিন।
শুরুতেই মাথায় রাখুন :
* বাচ্চার ৩ বছর বয়স থেকে বছরে একবার আই চেক-আপ অবশ্যই করাবেন। বিশেষত বাবা-মায়ের চোখের পাওয়ার যদি হাই হয়।
* দিনে ৩ থেকে ৪ বার ঠান্ডা জল দিয়ে চোখ পরিষ্কার করতে বলুন। খুব ছোট বাচ্চাদের ক্ষেত্রে স্টেরিলাইজড কটন বল পানিতে ভিজিয়ে চোখ মুছিয়ে দিন।
* বাচ্চাকে ছোটবেলা থেকে চোখের যত্ন নিতে শেখান। যেমন: ক্লান্ত লাগলে ঠান্ডা জল দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলা, একটানা কম্পিউটারে গেম না খেলা, খুব কাছ থেকে বই না পড়া ইত্যাদি।
* কড়া রোদ থেকে চোখ বাঁচাবার জন্য চওড়া টুপি আর বাহারি রঙিন সানগ্লাস কিনে দিন।
* বাচ্চার টিভি দেখা এবং গেমস খেলার সময় বেঁধে দিন।
* শুয়ে শুয়ে বা গাড়িতে বই পড়তে দেবেন না, এতে চোখের ক্ষতি হয়।
* বাচ্চা যদি চোখে কম দেখে বা মাথাব্যথা নিয়ে কমপ্লেন করে, অবিলম্বে ডাক্তার দেখান।
* ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ না করে কোনও ধরনের আইড্রপ বা ওষুধ আপনার সন্তানের চোখে প্রয়োগ করবেন না।
চশমা আছে যাদের চোখে :
* প্রতি ৬ মাস অন্তর আই চেক-আপ করান যাতে পাওয়ারের তারতম্য হলে সঙ্গে সঙ্গে জানতে পারেন।
* বাচ্চাকে পছন্দ মত চশমার ফ্রেম বাছতে দিন, তা হলে সে চশমা নিয়মিত পরবে।
* নিয়মিত চশমা পরে থাকার ব্যাপারে স্ট্রিক্ট থাকুন। অনেক সময়ই অনিয়মিত চশমা পরার কারণে চোখের পাওয়ার বেড়ে যায়।
* অনিয়মিত চশমা পরার অভ্যাস থাকলে স্কুলে ক্লাস টিচারকেও জানিয়ে রাখুন, যাতে উনিও নজর রাখতে পারেন। ২ থেকে ৩ জোড়া চশমা তৈরি করিয়ে রাখুন কারণ ছোটাছুটি করে খেলার সময় চশমা ভেঙে যেতে পারে।
* যে সব বাচ্চা খেলাধুলো করে বা সাঁতার কাটে, ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে কন্ট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করতে দিতে পারেন।
কন্ট্যাক্ট লেন্স:
* ডাক্তার না বললে ছোট বাচ্চাদের কন্ট্যাক্ট লেন্স না দেওয়াই ভাল, কারণ নিয়মিত যত্ন নেওয়ার ঝুক্কি আছে।
* টিন এজারদের চোখে বেশি পাওয়ার থাকলে কন্ট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করতে পারে।
* কন্ট্যাক্ট লেন্স পরিষ্কার রাখা, পরা বা খুলে রাখার নিয়ম ডাক্তারের কাছ থেকে ভাল করে জেনে নেওয়া খুবই জরুরি। তার থেকেও বেশি জরুরি সেই নিয়মগুলো মেনে চলা। চোখের হাইজিনের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
* একটা নির্ধারিত সময়ের পর কন্ট্যাক্ট লেন্স বদল করতে হবে। এক লেন্স বেশি দিন পরে থাকা চোখের জন্য ক্ষতিকর।
* স্নান করা বা ঘুমানোর সময় কন্ট্যাক্ট লেন্স পরা ক্ষতিকর।
* অনেক সময় টিনএজাররা কালারড কন্ট্যাক্ট লেন্স বদলাবদলি করে পরে। এটা খুবই অস্বাস্থ্যকর। কন্ট্যাক্ট লেন্স থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে।
ডাক্তার দেখাবেন কখন:
* যখন মনে হবে-বাচ্চা বারবার হোঁচট খেয়ে পড়ে যাচ্ছে।
* পড়া বা আঁকাজোকার সময় মনঃসংযোগ করতে অসুবিধা হচ্ছে।
* দূরের জিনিস দেখার সময় গলা বাড়িয়ে দেখতে হচ্ছে।
* খুব কাছ থেকে বই বা খবরের কাগজ পড়ছে চোখ ছোট করে বা খুব কাছ থেকে টিভি দেখছে।
মাথায় রাখুন শাক, মাছ, ফলমূল আপনার সন্তানের চোখের যত্ন নিবে আড়ালেই তাই সন্তানের খাবারের তালিকায় শাক, ছোট মাছকে অন্তভুক্ত করুন বেশি করে। সন্তানকে সুস্থ রাখুন আর নিজে ভালো থাকুন।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

স্বাস্থ্য কুশল এর আরো সংবাদ
  • জুতায় কতদিন বেঁচে থাকতে পারে করোনাভাইরাস?
  • হার্ট সুস্থ রাখা চাই
  • হাম রুবেলা ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নে প্রচারণা
  • গাজরের উপকারিতা
  • রোগ প্রতিরোধে ডুমুর
  • তরমুজ এক উপকারী ফল
  • সকালের নাস্তা যখন সুস্বাস্থ্যের চাবিকাঠি
  • করোনাভাইরাস থেকে বাঁচার উপায়
  • শাকসবজি ও ফলমূল কেন খাবেন
  • দৈনন্দিন জীবনে লেবুর চাহিদা
  • এ্যাপোলো হসপিটালে ভারতের প্রথম ইনভেসিভ ডবল কার্ভ কারেকশন সার্জারি
  • হাঁড়ের ক্ষয় রোগ : নীরব ঘাতক
  • আপনার সন্তানের চোখের যত্ন নিন
  • আয়োডিন স্বল্পতায় জটিল রোগ
  • শারীরিক শক্তি বাড়ায় যে খাবার
  • সুস্থতার জন্য পানি
  • রোগ প্রতিরোধে ডালিম
  • শীতে হাঁপানি এড়াতে কী করবেন
  • শীতে ঠোঁটের সুরক্ষা
  • এক জায়গায় বসে কাজ করার কুফল
  • Image

    Developed by:Sparkle IT