সম্পাদকীয় স্বার্থপরতার স্বভাবই এই যে, সে ক্রমশ সংকীর্ণতার দিকে আকর্ষণ করে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

দূষণে শীর্ষে বাংলাদেশ

প্রকাশিত হয়েছে: ১১-০৩-২০২০ ইং ০১:০০:২৭ | সংবাদটি ১৩১ বার পঠিত
Image

দূষণে শীর্ষে বাংলাদেশ। আইন বা প্রতিরোধে কোন কার্যকরী ব্যবস্থা না থাকায় নানা ধরণের দূষণে আজ বিশ্বের সকল দেশের শীর্ষে অবস্থান করছে। দূষণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেÑ বায়ু দূষণ, শব্দ দূষণ, পানি দূষণ, নদী দূষণ ইত্যাদি। আর এইসব দূষণে সার্বিকভাবে বিপর্যস্থ হচ্ছে পরিবেশ। যার শিকার হচ্ছে মানুষ নানাভাবে। মোটকথা, এই ধরণী দিন দিন অযোগ্য হয়ে উঠছে বসবাসের। এই অবস্থা থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ হলো সরকারসহ পুরো জনগোষ্ঠীর সর্বাত্মক সচেতনতা।
জানাগেছে, বায়ু দূষণে বিশ্বে প্রতি বছর প্রাণ হারায় ৭০ লাখ মানুষ। আর বায়ু দূষণের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। এখানে প্রতিনিয়ত বায়ু দূষণের মাত্রা বেড়ে চলেছে। মূলত মানুষের অপরিনামদর্শী আচরণই এর জন্য দায়ী। যানবাহন-কলকারখানার ধোঁয়া, ধূলোবালি বাতাসকে দূষিত করছে। নদী ও পানি দূষিত হচ্ছে মানুষের সচেতনতার অভাবে। ময়লা আবর্জনা, বিভিন্ন ধরণের বিষাক্ত পদার্থ অনবরত ফেলা হচ্ছে পানিতে। এতে শুধু নদী নয়, হাওর-ডোবা, জলাশয়, খাল-বিলের পানিও এভাবে দূষিত হচ্ছে। যে কারণে মৎস্য সম্পদ, জলজ উদ্ভিদ ধ্বংস হচ্ছে। দেখা দিচ্ছে বিশুদ্ধ পানির সংকট। মানবজাতির জন্য আরেকটি ভয়াবহ আতঙ্কের নাম হলো শব্দ দূষণ। আজকাল আমাদের শহর, নগর কিংবা গ্রাম কোথাও স্বস্থি নেই। শব্দ দূষণে অতিষ্ট মানুষ। বিশেষ করে শহরাঞ্চলে শব্দ দূষণের কারণে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে নানা ধরণের রোগে। জানাগেছে, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, মাথাব্যথা, অনিদ্রা, বদহজম প্রভৃতি রোগের জন্য দায়ী শব্দ দূষণ। এতে শিশুদের দৃষ্টিশক্তি হ্রাস পাচ্ছে, বুদ্ধিমত্তা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। অর্থাৎ উচ্চস্বরের শব্দ নীরবে সর্বনাশ করছে জনস্বাস্থ্যের।
বায়ু দূষণ, শব্দ দূষণ বা নদী দূষণ রোধে শুধু বুদ্ধিজীবী মহলেই আলোচনা হয়ে থাকে, অনুষ্ঠিত হয় সেমিনার, সিম্পোজিয়াম। এই ব্যাপারে পালিত হয় বিশেষ দিবসও। কিন্তু বাস্তবে কার্যকর কোন কিছুই চোখে পড়ে না। এইসব দূষণ রোধে সুনির্দিষ্ট কোন পদক্ষেপ নেয়ার কথা শোনা যায় না।] অথচ সরকারের পরিবেশ অধিদপ্তর রয়েছে; আছে জনবলও। তবে আর নীরবতা পালন করার কোন সুযোগ নেই। পরিবেশ বিপর্যয়ের ঝুঁকিতে এখন সারা বিশ্ব। তাই ঝুঁকি মোকাবেলায় পর্যাপ্ত সতর্কতার বিকল্প নেই। বিশেষ করে আমাদের জন্য সতর্কতা গ্রহণ খুবই জরুরি।

 

শেয়ার করুন

Developed by:Sparkle IT