শিশু মেলা

সূর্যমুখী

সুফিয়ান আহমদ চৌধুরী প্রকাশিত হয়েছে: ১৯-০৩-২০২০ ইং ০০:৩৪:২৪ | সংবাদটি ৫৫০ বার পঠিত
Image

জরিনার ডাকে ঘুম থেকে জেগে ওঠে সেলিম। চোখটা খুলতেই দেখে জরিনা তার গা থেকে লেপটা সরিয়ে নিচ্ছে। শীতের হিমেল হাওয়া তার গায়ে ছোবল হানে। সে জরিনাকে বলে, যা দুষ্টুমি করছিস কেনো। লেপটা আবার গায়ে জড়িয়ে নিতে চায়। কিন্তু লেপটা ছাড়ে না জরিনা। সেলিম রাগান্বিত হয়। জরিনা বলে ওঠে ভাইয়া রহমান ভাই এসেছে। রহমানের কথা শুনতেই তার রাগ কিছুটা ঝিমিয়ে পড়ে। সে ঝটপট বিছানা ছেড়ে ওঠে। চাদরটা গায়ে জড়িয়ে নেয়। জরিনার দিকে তাকিয়ে বলে কি সর্বনাশ। শহীদ মিনারে যাবার কথা। যাতো লক্ষ্মী বোন। তাড়াতাড়ি চা-নাস্তা নিয়ে আয়। জরিনা ভাইয়ার কথায় সাড়া দেয়। রান্না ঘরে চলে যায় সে। রহমান বাইরে দাঁড়িয়ে আছে। সেলিম তাকে ঘরে নিয়ে আসে। রহমান ঘরে ঢুকেই বলে বেশিক্ষণ বলতে পারবো না দোস্ত। তাড়াতাড়ি করো। মাঠে ক্লাবের সবাই তোর জন্য অপেক্ষা করছে। তাই নাকি। একটু বস আমি মুখটা ধুয়ে আসি বলেই সে বাথরুমে ঢুকে। কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে আসে এবং পাজামা পাঞ্জাবিটা গায়ে চড়িয়ে দেয়। এরই মধ্যে জরিনা টেবিলে চা নাস্তা রেখে গিয়েছে। সেলিম রহমানকে নিয়ে চা নাস্তার পালা শেষ করে। আলমারি থেকে সযত্নে রাখা সূর্যমুখী ফুলটা বের করে নেয়। গত রাতে মেজো মামার বাগান থেকে এই ফুলটা এনেছে সে। পায়ের জুতোটা খুলে ফুলটা হাতে নেয়। তারপর খালি পায়ে রহমানকে নিয়ে রাস্তায় পা বাড়ায়। কুয়াশা কেটে কেটে তারা হাঁটতে থাকে। পাড়ার ক্লাবের মাঠটায় আসতেই দেখলো ঠিকই জটলা করে সবাই তার অপেক্ষা করছে। পরে সারিবদ্ধ লাইনে দাঁড়ায় সাথীরা। সামনে তাদের ক্লাবের ব্যানারটি রয়েছে এতে লেখা রয়েছে মহান শহীদ দিবস অমর হোক। সবুজ স্পোর্টিং ক্লাব। সেলিম রহমান গিয়েই লাইনে দাঁড়ায়। তাদের বুকে কালো ও লাল ব্যাজ পরিয়ে দেয় কে একজন। আস্তে আস্তে মিছিলটি শহরের অলিগলি ঘুরে শহীদ মিনারের দিকে রওনা হয়। চারদিকে নিরব-নিস্তব্ধ পরিবেশ।
মিছিলের সবার মুখে দুঃখের ছায়া। স্বজন হারানোর বেদনায় ব্যথিত তারা। কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে সবাই গান গেয়ে হাঁটছে আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী.... এক সময় মিছিলটি শহীদ মিনারে এসে দাঁড়ায়। অশ্রুসজল চোখে একজনের পর একজন ফুল রাখে শহীদ মিনারে। সবার শেষে সেলিমের পালা এলো। তার দু’চোখ বেয়ে অশ্রু ঝরতে থাকে। অনেক ফুলের ভিড়ে সূর্যমুখী ফুলটা শ্রদ্ধাভরে রাখলো সে। মুহূর্তে চোখের সামনে ভেসে ওঠে হাজারো শহীদদের মুখ। ওরা যেনো এক একটি সূর্যমুখী।

 

শেয়ার করুন

Developed by:Sparkle IT