প্রথম পাতা

দেশে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ২৯১১, মৃত্যু ৩৭

ডাক ডেস্ক : প্রকাশিত হয়েছে: ০২-০৬-২০২০ ইং ১৪:৫৩:১০ | সংবাদটি ২৮৫ বার পঠিত
Image

বিশ্বে যখন মৃত্যু মিছিল তখন করোনায় বাংলাদেশেও দিনকে দিন বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। ফলে ভাইরাসটিতে মোট ৭০৯ জন মারা গেলেন। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরো ২ হাজার ৯১১ জন। ফলে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ হাজার ৪৪৫ জন। ৫২ টি পরীক্ষাগারে এসব পরীক্ষা করা হয়। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪, ৯৫০টি নমুনা।

মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি সবাইকে স্বাস্থ্য পরামর্শ মেনে ঘরে থাকার আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি পুষ্টিকর খাবার গ্রহণেরও পরামর্শ দেন। একই সাথে যারা করোনার এই মহামারিতে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাদের ধন্যবাদ দেন নাসিমা।

এর আগে সোমবারের (১ জুন) বুলেটিনে জানানো হয়, দেশে চব্বিশ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ২৩৮১ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৯,৫৩৪। এ সময়ের মধ্যে মারা গেছেন আরো ২২ জন। সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা ৬৭২। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮১৬ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৫৯৭ জন।

সোমবারের ব্রিফিংয়ে আরো জানানো হয়, সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ৫২টি পরীক্ষাগারে ১১ হাজার ৪৩৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৮১ শতাংশ। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১ দশমিক ৩৯ শতাংশ, মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩৬ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, চীনের উহান থেকে বিস্তার শুরু করে গত চার মাসে বিশ্বের ২১২টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। চীনে করোনার প্রভাব কমলেও বিশ্বের অন্য কয়েকটি দেশে মহামারি রূপ নিয়েছে। এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৬৪ লাখ ছুঁই ছুঁই। মারা গেছেন তিন লাখ ৭৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে ২৯ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি রোগী ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

করোনাভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। উপসর্গগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে ডেকে আনতে পারে মৃত্যু।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ছাতকে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন যুবক
  • হুমায়ুন রশীদ চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী পালিত শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ ও দোয়া মাহফিল
  • জাফলংয়ে বাল্কহেডের ধাক্কায় বালুবোঝাই নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ ২
  • নগরীর উন্মুক্ত ৩টি মাঠে বসছে কোরবানির পশুর হাট
  • সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক প্রকাশ
  • বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে
  • সাহেদকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • করোনায় বাতিল ট্রেনের টিকিটের মূল্য ফেরত পাবেন যাত্রীরা
  • বাংলাদেশসহ ১৩ দেশ থেকে ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা
  • সিলেট বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৫৯, মৃত্যু ২ ও সুস্থ ৬২ জন
  • করোনা জয় করলেন ৩৫ বিচারক
  • বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস আজ
  • ভারতে করোনা শনাক্তে রেকর্ড একদিনে সাড়ে ২৬ হাজারের বেশি
  • দুবাই-আবুধাবি ফ্লাইট চালুর নতুন তারিখ নির্ধারণ
  • সরকারি অফিসে নতুন গাড়ি কেনা বন্ধ
  • কোরবানির চামড়া কিনতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ঋণ দেওয়ার নির্দেশ
  • আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই
  • মাস্ক পরলে করোনার ঝুঁকি ৬৫ ভাগ কমে
  • ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৭, শনাক্ত ২৯৪৯
  • ভক্ত আশেকানদের মাজারে একত্রিত না হওয়ার অনুরোধ এসএমপির
  • Image

    Developed by:Sparkle IT