শেষের পাতা

পাওনা বুঝিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে উৎপাদন বন্ধের সিদ্ধান্ত

ডাক ডেস্ক : প্রকাশিত হয়েছে: ০৩-০৭-২০২০ ইং ০১:১৭:৫৩ | সংবাদটি ৫০ বার পঠিত
Image

শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা বুঝিয়ে দিয়ে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকলের উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে সরকার।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা সাংবাদিকদের জানান।
তার আগে সকালে গণভবনে মুখ্য সচিব, অর্থ সচিব, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন সরকারপ্রধান।
মুখ্য সচিব বলেন, “আজ যখন প্রধানমন্ত্রী এই সিদ্ধান্ত নিলেন, তিনি খুব আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলেন।”
ধারাবাহিকভাবে লোকসানে থাকা রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর ২৪ হাজার ৮৮৬ জন স্থায়ী কর্মচারীর চাকুরি গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের মাধ্যমে অবসায়নের সিদ্ধান্ত গত রোববার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।
বস্ত্র ও পাট সচিব লোকমান হোসেন মিয়া সেদিন বলেছিলেন, শ্রমিকদের অবসায়নের পর আগামী ছয় মাসের মধ্যে পিপিপির (সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব) আওতায় আধুনিকায়ন করে এসব পাটকলকে উৎপাদনমুখী করা হবে। তখন এসব শ্রমিক সেখানে চাকুরি করার সুযোগ পাবেন।
২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত যে ৮ হাজার ৯৫৪ জন পাটকল শ্রমিক অবসরে গেছেন, তাদের সব পাওনাও একসঙ্গে বুঝিয়ে দেওয়া হবে বলে সেদিন জানিয়েছিলেন পাটমন্ত্রী।
তবে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন এর বিরোধিতায় মিছিল-সমাবেশের মতো কর্মসূচি চালিয়ে আসছে গত কয়েক দিন ধরে।
বিশ্বে পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা যেখানে বাড়ছে, সেখানে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর আধুনিকায়ন হলে শ্রমিক ছাঁটাই নয়, বরং নতুন শ্রমিকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে বলে যুক্তি দিয়ে আসছেন প্রতিবাদকারীরা।
এ পর্যন্ত এই পাটকলগুলোর পুঞ্জিভূত ক্ষতির পরিমাণ ১০ হাজার ৬৭৪ কোটি টাকা জানিয়ে আহমদ কায়কাউস গতকাল বৃহস্পতিবার বলেন, “এখানে কাউকে চাকুরিচ্যুত করা হচ্ছে না। শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করে তাদের অবসরে পাঠানো হচ্ছে।”
২০১৫ সালের সর্বশেষ মজুরি কাঠামো অনুযায়ী প্রায় ২৫ হাজার পাটকল শ্রমিক অবসরকালীন সুবিধাসহ প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা পাবেন জানিয়ে আহমদ কায়কাউস বলেন, সেজন্য আগামী তিন দিনের মধ্যে শ্রমিকদের তালিকা তৈরি করতে প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন।
বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) অধীনে থাকা ২৬টি পাটকলের মধ্যে মনোয়ার জুট মিল ছাড়া সবগুলোতেই উৎপাদন চলছে।
এসব কারখানায় ২৪ হাজার ৮৬৬ জন স্থায়ী শ্রমিকের বাইরে তালিকাভুক্ত ও দৈনিক মজুরিভিত্তিক শ্রমিক আছে প্রায় ২৬ হাজার।
বেসরকারি খাতের পাটকলগুলো লাভ দেখাতে পারলেও বিজেএমসির আওতাধীন মিলগুলো বছরের পর বছর লোকসান করে যাচ্ছে, যার পেছনে অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।
বস্ত্র ও পাট সচিব লোকমান হোসেন মিয়া এর আগে জানিয়েছিলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো গত ৪৪ বছরের মধ্যে মাত্র ৪ বছর লাভ করেছে। ৪৮ বছরে এই খাতে সরকারকে ১০ হাজার ৬৭৪ কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হয়েছে। প্রতি বছর শ্রমিকের মজুরিসহ খরচ মেটাতে সরকারের উপর নির্ভর করতে হয়েছে।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • নবীগঞ্জে কবরস্থান নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৬
  • জগন্নাথপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়কগুলো দ্রুত সংস্কারের জন্য পরিকল্পনামন্ত্রীর নির্দেশ
  • ছাতকে রেলওয়ে নিরাপত্তা প্রহরী হত্যা ও ডাকাতির ঘটনায় জড়িত আরেক আসামী গ্রেফতার
  • ছাতকে বেফাঁস মন্তব্য করে বেকায়দায় পুলিশ কর্মকর্তা
  • নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সিলেটের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে ভিড় জাফলংয়ের জিরো পয়েন্টে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ
  • উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ায় কোভিড সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার কম
  • বড়লেখায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু নিয়ে রহস্য পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ স্বজনদের
  • সিলেটে কোরবানির পশুর চামড়া নিয়ে ব্যবসায়ীরা বিপাকে
  • সপ্তাহের শেষ দিকে বাড়বে বজ্রসহ বৃষ্টিপাত সমুদ্রবন্দর সমূহকে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত
  • শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ
  • ছাতক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃপেশ চন্দের পিতৃবিয়োগ
  • ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি মুয়াজ্জিনের মৃত্যু
  • জকিগঞ্জে প্রায় ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা আটক
  • নবীগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু॥ আহত ১
  • হবিগঞ্জে ৭ সন্তানের মাকে গলা কেটে হত্যা : আটক ২
  • ঢাকাদক্ষিণে সমাজসেবক রকিব উদ্দিন স্মরণ সভা ও অনুদান বিতরণ
  • ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি নীতিমালার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন
  • আজ থেকে ঈদের ছুটি
  • ঈদুল আযহার দিন সিলেট বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা
  • সিলেট বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৭৫, মৃত্যু ৫
  • Image

    Developed by:Sparkle IT