শেষের পাতা জৈন্তাপুরে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

বন্যাদুর্গত এলাকায় পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা বরাদ্দের দাবি

জৈন্তাপুর (সিলেট) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ প্রকাশিত হয়েছে: ০৪-০৭-২০২০ ইং ০২:৩৪:৩৬ | সংবাদটি ৯১ বার পঠিত
Image

জৈন্তাপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি‘র অনেকটা উন্নতি হয়েছে বলে জানা গেছে। সারি ও বড়গাং নদীর পানি স্বাভাবিক অবস্থায় প্রবাহিত হচ্ছে। অবিরাম ভারী বৃষ্টিপাত ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে জৈন্তাপুর উপজেলার সবক‘টি ইউনিয়নের নি¤œাঞ্চল প্লাবিত হয়ে হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েন। বর্তমানে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি অনেকটা উন্নতি হয়েছে। তবে বন্যা দুর্গত এলাকার অসহায় মানুষের মধ্যে পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা বরাদ্দের দাবী জানানো হয়েছে।
উপজেলায় বন্যা দূর্গত এলাকায় সরকারি ত্রাণ সহায়তা হিসেবে এ পর্যন্ত ২৬ মেট্রিক টন চাল এবং শুকনো খাবারের জন্য নগদ ৬৮ হাজার টাকা এবং শিশু খাদ্যের জন্য আরো ২৪ হাজারসহ ৯২ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। বন্যায় উপজেলার গ্রামীণ জনপদের বেশ কয়েকটি রাস্তাঘাটে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। তবে উঁচু এলাকা থেকে বন্যার পানি কমলেও নি¤œ্াঞ্চলগুলোতে বন্যা পরিস্থিতি এখনও অপরিবর্তিত রয়েছে। এ পর্যন্ত উপজেলায় কৃষকদের সাড়ে ৩ হেক্টর আউশ ধান বন্যার পানিতে নিমজ্জিত হয়ে গেছে। উপজেলার অনেক মৎস্যজীবির খামার পানিতে তলিয়ে গেছে।
উপজেলা প্রকৌশল রামেন্দ্র হোম চৌধুরী জানিয়েছেন, আকষ্মিক বন্যায় উপজেলার নিজপাট ইউনিয়নের গুয়াবাড়ি রাস্তা, জৈন্তাপুর ইউনিয়নের ডুলটিরপার রাস্তা, দরবস্ত ইউনিয়নের গর্দ্দনা ধার্মী রাস্তা, চাল্লাইন-করগ্রাম রাস্তা, চারিকাটা ইউনিয়নের রামপ্রসাদ রাস্তা এবং ফতেপুর ইউনিয়নের হেমু গ্রামের রাস্তার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার সালাউদ্দিন মানিক জানান, বন্যায় জৈন্তাপুর ইউনিয়নের বাওন হাওর এলাকায় প্রস্তাবিত আশ্রায়ন প্রকল্পের মাটি ধসে গিয়ে অনেক ক্ষতি হয়েছে।
পুনরায় প্রস্তাবিত আশ্রায়ন প্রকল্পের জায়গায় মাটি ভরাটের কাজ করতে হবে।
জৈন্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান জানান, জৈন্তাপুর উপজেলার কেন্দ্রী, শেওলারটুক, বাওন হাওর, বাউরভাগ, ল²ীপুর, বিরাইমারা গ্রামের মানুষ এখন পানি বন্দি অবস্থায় রয়েছেন। বন্যা দূর্গত এলাকায় সরকারী ত্রাণ সহায়তা বিতরণ করা হচ্ছে। তিনি জানান, জৈন্তাপুর ইউনিয়নের গ্রামীণ জনপদের অনেক রাস্তাঘাট বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে।
দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার জানান, বন্যার তার ইউনিয়নের ভাটিরজনপদ হিসেবে পরিচিত কয়েকটি গ্রামের জনগণ এখনও পানি বন্দি রয়েছেন। স্থানীয় জনগণকে নৌকা দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।
জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক গিয়াস আহমদ জানান, আকষ্মিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ জৈন্তাপুর, কানাইঘাট, গোয়াইনঘাট এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাকে সরকারিভাবে বন্যা দুর্গত এলাকা ঘোষণা এখন সময়ের দাবী। তিনি বন্যার্ত অসহায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সরকারী ত্রাণ সহায়তা বরাদ্দ দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি জোরদাবী জানান।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়ায় কোভিড সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার কম
  • বড়লেখায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু নিয়ে রহস্য পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ স্বজনদের
  • সিলেটে কোরবানির পশুর চামড়া নিয়ে ব্যবসায়ীরা বিপাকে
  • সপ্তাহের শেষ দিকে বাড়বে বজ্রসহ বৃষ্টিপাত সমুদ্রবন্দর সমূহকে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত
  • শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ
  • ছাতক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃপেশ চন্দের পিতৃবিয়োগ
  • ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি মুয়াজ্জিনের মৃত্যু
  • জকিগঞ্জে প্রায় ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ বিক্রেতা আটক
  • নবীগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু॥ আহত ১
  • হবিগঞ্জে ৭ সন্তানের মাকে গলা কেটে হত্যা : আটক ২
  • ঢাকাদক্ষিণে সমাজসেবক রকিব উদ্দিন স্মরণ সভা ও অনুদান বিতরণ
  • ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি নীতিমালার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন
  • আজ থেকে ঈদের ছুটি
  • ঈদুল আযহার দিন সিলেট বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা
  • সিলেট বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৭৫, মৃত্যু ৫
  • লিডিং ইউনিভার্সিটির সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত
  • জকিগঞ্জে ৬ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার ॥ মা-মেয়েসহ গ্রেফতার ৫
  • সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি দোতলা বাস সার্ভিস ফের চালু
  • ইঞ্জিনিয়ার শাহজাহান কবির ডালিমের স্ত্রীর অকাল মৃত্যু
  • করোনায় মারা গেলেন কাজিটুলা বিহঙ্গ তরুণ সংঘের সভাপতি মিঠু
  • Image

    Developed by:Sparkle IT