'/> SylheterDak.com.bd
শেষের পাতা ধরাছোঁয়ার বাইরে মূল হোতারা

ছাতকে নৌপথে বেপরোয়া চাঁদাবাজী

ছাতক (সুনামগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ প্রকাশিত হয়েছে: ১০-০৭-২০২০ ইং ০২:৩২:১৪ | সংবাদটি ৮২ বার পঠিত
Image

ছাতকে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে নৌপথের চাঁদাবাজরা। একাধিকবার সংঘর্ষ, মামলা-গ্রেফতার, প্রশাসনের অভিযান স্বত্ত্বেও পণ্যবাহী নৌযান থেকে চাঁদা আদায় অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন সমিতির নামে চলছে চাঁদা আদায়। প্রতিদিনই এ নৌপথের ৬-৮টি স্থান থেকে ৪-৫ লাখ টাকার মতো চাঁদাবাজি হচ্ছে পাথর-বালু ও চুনাপাথরবাহী বার্জ-কার্গো ও নৌকা থেকে। চাঁদাবাজিতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মী জড়িত থাকারও অভিযোগ উঠেছে। প্রশাসনের অভিযানে মাঝে মধ্যে স্পট থেকে দুই একজনকে আটক করা হলেও ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যান মূলহোতারা। আটককৃতরা মূলত কমিশনে বা বেতনভুক্ত হিসেবে চাঁদা আদায় করেন। পর্দার আড়ালের রাঘব-বোয়ালরা আবার এদের জামিন করানোর জন্য শুরু করেন তদবির। এর মধ্যেই কমিশন দেয়ার শর্তে নদীতে নতুন চাঁদাবাজ নিয়োগ করেন তারা। ফলে কোনোভাবেই বন্ধ করা যাচ্ছে না এসব চাঁদাবাজি। জানা যায়, ছাতক ও কোম্পানীগঞ্জের সুরমা, চেলা এবং পিয়াইন নদী পথে বালু, পাথর, চুনাপাথর ও কয়লা নিতে আসে বাল্কহেড, বার্জ, কার্গো ও ইঞ্জিনচালিত নৌকাসহ শতাধিক বিভিন্ন ধরনের নৌযান। বর্ষা মৌসুমে এ ধরনের যান চলাচল আরও বেড়ে যায়। এসব নৌযান ভোলাগঞ্জ, শাহ আরেফিন টিলা, বিছনাকান্দি ও লোভাছড়া পাথর কোয়ারিসহ বিভিন্ন কোয়ারি থেকে পাথর সংগ্রহ করে। এ ছাড়া ভারত থেকে চুনাপাথর, বোল্ডার-সিঙ্গেল আমদানি করেও ছাতক নৌ-বন্দর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ডাম্পিং করা হয়। এসব স্থানের ব্যবসায়ীদের নৌযানকে ছাতক ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তী নৌপথের ইছাকলস, কালারুকা ইউনিয়নের বোবরাপুর, দিগলবন্দ, চেলা নদীর মুখ, থানাঘাট, চাঁদনীঘাট, পেপারমিল ঘাট, নোয়ারাইঘাট, বারকাপন মুক্তিরগাঁও, বউলার মুখ, জামুরায়সহ কয়েকটি পয়েন্টে এ চাঁদা দিতে হয় নৌযানগুলোকে।যাদের চাঁদা আদায়ের বৈধতা রয়েছে তারাও অতিরিক্ত চাঁদা আদায় করছেন টোল আদায়ের নামে। প্রতিদিন শ'খানেক ছোট-বড় নৌযানকে ঘাঁটে ঘাঁটে এ কারণে গড়ে চার হাজার টাকা করে চাঁদা দিতে হচ্ছে।জানা গেছে, চাঁদাবাজির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে একাধিকবার চাঁদাবাজদের বিভিন্ন গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ গত বছর ১৪ মে রাতে ছাতক শহরের নদীতে চাঁদাবাজি নিয়ে ফেসবুকের স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে দু'পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। এতে মারা যান সাহাবুদ্দিন নামে এক ব্যক্তি। গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন ওসি মোস্তফা কামাল। এরপর পুলিশ তৎপর হলে কিছুদিন বন্ধ থাকে চাঁদাবাজি। পুলিশি তৎপরতা স্তিমিত হয়ে এলে চাঁদাবাজি আবারো শুরু হয়।চলতি সপ্তাহেই নৌযান থেকে চাঁদা আদায়কালে অভিযান চালিয়ে কালারুকা ইউনিয়নের দিঘলবন্দ এলাকা থেকে একটি ইঞ্জিন নৌকাসহ চারজনকে আটক করে নৌ-পুলিশ। এরপর ছাতক নৌ-পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৩ জনের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় মামলা করেন।এ ব্যাপারে নৌ-পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, চাঁদাবাজি বন্ধে পুলিশ তৎপর রয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। বিগত দিনে উপজেলার প্রায় ২৮টি পয়েন্টে চাঁদাবাজি হতো। বর্তমানে ৬-৭টি পয়েন্টে চাঁদাবাজি হচ্ছে বলে জানান তিনি।এ প্রসঙ্গে ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম কবির জানান, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে প্রশাসন জিরো টলারেন্সে আছে। সরাসরি জড়িত এবং পর্দার আড়ালের সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • ঢাকাদক্ষিণে সমাজসেবক রকিব উদ্দিন স্মরণ সভা ও অনুদান বিতরণ
  • ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি নীতিমালার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন
  • আজ থেকে ঈদের ছুটি
  • ঈদুল আযহার দিন সিলেট বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা
  • সিলেট বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৭৫, মৃত্যু ৫
  • লিডিং ইউনিভার্সিটির সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত
  • জকিগঞ্জে ৬ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার ॥ মা-মেয়েসহ গ্রেফতার ৫
  • সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি দোতলা বাস সার্ভিস ফের চালু
  • ইঞ্জিনিয়ার শাহজাহান কবির ডালিমের স্ত্রীর অকাল মৃত্যু
  • করোনায় মারা গেলেন কাজিটুলা বিহঙ্গ তরুণ সংঘের সভাপতি মিঠু
  • লাক্কাতুরা চা-বাগান স্কুল মাঠ থেকে পশুর হাট সরালো প্রশাসন
  • পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণ, তিনজন ১৪ দিনের রিমান্ডে
  • এই ঈদেও পর্যটক শূন্য থাকবে ‘প্রকৃতি কন্যা’ সিলেট
  • সিলেটে জমেনি মসলার বাজার
  • ঈদের পর করোনার সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা
  • স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সাজ্জাদের ভাইয়ের ৯ কোটি টাকা অবরুদ্ধ করলো দুদক
  • শেরপুরে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা
  • বিয়ানীবাজারে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে তিন সিএনজিতে আগুন
  • মৌলভীবাজারে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযানে জরিমানা
  • ছাতকে বন্যায় কবরস্থানের উন্নয়ন কাজ বন্ধ
  • Image

    Developed by:Sparkle IT