শেষের পাতা

জগন্নাথপুর চিলাউড়া সড়ক রক্ষায় স্বেচ্ছাশ্রমে এলাকাবাসী

জগন্নাথপুর সুনামগঞ্জ থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ প্রকাশিত হয়েছে: ১১-০৭-২০২০ ইং ০২:৪৭:০৯ | সংবাদটি ৫৭ বার পঠিত
Image

জগন্নাথপুর পৌর সভার ইকড়ছই ঈদগাহ পয়েন্ট থেকে চিলাউড়া বাজার সড়কটি রক্ষায় স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করছেন এলাকাবাসী। বাঁশের আড়া দিয়ে এবং বালির বস্তা ফেলে সড়কটি রক্ষার চেষ্টা করছেন তারা। এদিকে, সড়কটি রক্ষায় এলজিইডি অবহেলা করছে বলে অভিযোগে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা যায়, জগন্নাথপুর পৌরসভার তিনটি ওয়ার্ড ও চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নবাসীর যোগাযোগের একমাত্র সড়ক জগন্নাথপুর চিলাউড়া সড়ক। সড়কের মইয়ার হাওরের পাশের ৪০০ মিটার অংশ সাম্প্রতিক বন্যা ও হাওরের পানির ঢেউয়ে ভাঙতে শুরু করে। এলাকাবাসী সড়ক রক্ষায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলীকে অবহিত করে তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সম্প্রতি উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে সড়কের একটি অংশে ৫০ হাজার টাকার বস্তা ফেলে সামান্য কাজ করা হয়। গত দুই তিন দিন ধরে সড়কের ভাঙ্গনের গতি তীব্র আকার ধারণ করলে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় স্বেচ্ছাশ্রমে সড়ক রক্ষায় নামেন এলাবাসী। গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে গতকাল শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত যাত্রাপাশা ও শেরপুর গ্রামের বিভিন্ন বয়সী ৪০ জন স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের আড়া ও বালির বস্তা ফেলে সড়কটির ক্ষতিগ্রস্থ অংশ রক্ষার চেষ্টা করেন। যাত্রাপাশা গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী বকুল গোপ জানান, সড়কটি জগন্নাথপুর পৌর সভার ৭, ৮, ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নবাসীর উপজেলা সদরের সাথে সড়ক যোগাযোগের একমাত্র পথ। সড়কের যাত্রাপাশা ও শেরপুর অংশে ভাঙ্গন যেভাবে শুরু হয়েছে তাতে সড়কটি বিলীন হয়ে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। এ অবস্থা দেখে তারা দুই গ্রামের মানুষ স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশ দিয়ে বেড়া দিয়ে মাটিভর্তি বস্তা ফেলার পাশাপাশি ঢেউয়ের কবল থেকে সড়ক রক্ষায় কচুরিপানার স্তুপ আটকে রেখেছেন। শেরপুর গ্রামের বাসিন্দা উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান জানান, সড়কটি রক্ষায় এলজিইডি নীরব ভূমিকা পালন করছে। মাত্র ৪০০ মিটার গার্ড ওয়াল অথবা ব্লকের কাজের জন্য বারবার ধর্না দিয়ে কোন সুফল মিলছে না। তিনি বলেন, সামান্য কাজের জন্য সড়কটি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ১০ ফুট প্রস্থ সড়ক ভেঙে বিভিন্ন জায়গায় ৫ ফুট হয়ে গেছে। স্বেচ্ছাশ্রমে সড়কটি রক্ষার চেষ্টা করছেন তারা। যাত্রাপাশা গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর দ্বিপক গোপ জানান, সড়কটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ। অথচ সড়ক রক্ষায় এলজিইডির ভূমিকায় তারা হতাশ।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী এলজিইডি গোলাম সারোয়ার জানান, দুই বছর আগে সড়কে ৪৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কার করা হয়েছিল। সম্প্রতি সড়কের যাত্রাপাশা অংশে কিছু ভাঙ্গন দেখা দিলে তারা উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে তাৎক্ষণিক কিছু সংস্কার কাজ করেছেন। সড়কের সংস্কারের জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন আছে।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • ঢাকাদক্ষিণে সমাজসেবক রকিব উদ্দিন স্মরণ সভা ও অনুদান বিতরণ
  • ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি নীতিমালার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন
  • আজ থেকে ঈদের ছুটি
  • ঈদুল আযহার দিন সিলেট বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা
  • সিলেট বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৭৫, মৃত্যু ৫
  • লিডিং ইউনিভার্সিটির সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত
  • জকিগঞ্জে ৬ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার ॥ মা-মেয়েসহ গ্রেফতার ৫
  • সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি দোতলা বাস সার্ভিস ফের চালু
  • ইঞ্জিনিয়ার শাহজাহান কবির ডালিমের স্ত্রীর অকাল মৃত্যু
  • করোনায় মারা গেলেন কাজিটুলা বিহঙ্গ তরুণ সংঘের সভাপতি মিঠু
  • লাক্কাতুরা চা-বাগান স্কুল মাঠ থেকে পশুর হাট সরালো প্রশাসন
  • পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণ, তিনজন ১৪ দিনের রিমান্ডে
  • এই ঈদেও পর্যটক শূন্য থাকবে ‘প্রকৃতি কন্যা’ সিলেট
  • সিলেটে জমেনি মসলার বাজার
  • ঈদের পর করোনার সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা
  • স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সাজ্জাদের ভাইয়ের ৯ কোটি টাকা অবরুদ্ধ করলো দুদক
  • শেরপুরে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা
  • বিয়ানীবাজারে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে তিন সিএনজিতে আগুন
  • মৌলভীবাজারে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযানে জরিমানা
  • ছাতকে বন্যায় কবরস্থানের উন্নয়ন কাজ বন্ধ
  • Image

    Developed by:Sparkle IT