সম্পাদকীয় জীবনকে যদি তুমি ভালোবাসো তবে সময়ের অপচয় করো না; কারণ জীবনটা সময়েরই সমষ্টি দ্বারা তৈরি। -ফ্রাংকলিন

শতভাগ বিদ্যুতায়নের পথে

প্রকাশিত হয়েছে: ০৪-০৯-২০২০ ইং ০৩:০৩:০৪ | সংবাদটি ৯১ বার পঠিত
Image

শতভাগ বিদ্যুতায়নের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ। চলতি মুজিববর্ষেই দেশের শতভাগ এলাকা বিদ্যুতায়নের আওতায় চলে আসবে। আর শতভাগ বিদ্যুতায়ন থেকে আর মাত্র তিনশতাংশ এলাকা বাকি রয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীর বক্তব্য হচ্ছে- দ্রুত গতিতে কাজ করায় সরকারের নির্ধারিত সময়ের এক বছর আগেই শতভাগ বিদ্যুতায়নের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বর্তমানে দেশের ৯৭ ভাগ মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে বিদ্যুৎ সুবিধা। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই বাকি তিন শতাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ পৌঁছে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই লক্ষে সম্প্রতি দেশের ১৮টি জেলার ৩১টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। একই সঙ্গে ১৯টি নতুন বৈদ্যুতিক স্থাপনার যাত্রা শুরু হয়।
অতীতে বিদ্যুতের যে করুণ অবস্থা ছিলো, সেটা এখন ইতিহাস। বিদ্যুতের অভাবে চরম বিপর্যস্থ ছিলো জনজীবন। বলা যায় সবকিছুতেই একটা স্থবির অবস্থা বিরাজ করছিলো। কিন্তু এখন আর সেই দিন নেই। বিগত এক দশকে বিদ্যুৎখাতে বিস্তর উন্নতি হয়েছে। এখন বিদ্যুৎ উৎপাদনে দেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ। বিগত ১১ বছরে আওয়ামী সরকারের প্রচেষ্টায় ২৭টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র বৃদ্ধি পেয়ে মোট বিদ্যুৎ কেন্দ্র একশ ৩৮টিতে পৌঁছেছে। আর এ সময়ে মোট উৎপাদিত বিদ্যুৎ তিন হাজার দু’শ ৬৮ মেগাওয়াট থেকে বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ১৪ হাজার ছয়শ’ মেগাওয়াটে পৌঁছেছে। এ সময় বিদ্যুৎ সুবিধাভোগী জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৯৭ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। বিদ্যুতের এই ঈর্ষণীয় সাফল্যের পরও এদেশের মানুষ যে বিদ্যুৎ নিয়ে খুব স্বাচ্ছন্দ্যে আছেন, এমন নয়। শতভাগ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করলেও তাদেরকে নিত্যদিন নানা ধরনের ভোগান্তির মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে। প্রথমত লোডশেডিং বন্ধ হয়নি। চাহিদার চেয়ে বেশি উৎপাদনের পরও কেন লোডশেডিং যখন তখন, সেটা কেউ বুঝে উঠতে পারে না। আছে ত্রুটিপূর্ণ বিদ্যুৎ লাইন। বিভিন্ন স্থানে জরাজীর্ণ বিদ্যুৎ লাইন থেকে ঘটছে দুর্ঘটনা। ট্রান্সফরমার বিপর্যয় হচ্ছে আরেকটি বৃহৎ সমস্যা। জানা গেছে, ওভার লোডের কারণে প্রতি মাসে গড়ে কমপক্ষে পাঁচ হাজার ট্রান্সফরমার বিকল হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি বিকল হচ্ছে গ্রামাঞ্চলে পল্লী বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার। সারাদেশে কমপক্ষে আট লাখ ৯৫ হাজার ট্রান্সফরমার রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য অংশই মেয়াদোত্তীর্ণ অথবা ওভার লোডেড। এসব কিছুর বাইরে রয়েছে অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা। বিদ্যুতের ভৌতিক বিল নিয়ে চরম ভোগান্তিতে গ্রাহক সাধারণ।
প্রতি বছর ডিসেম্বরে বিদ্যুৎ সপ্তাহ পালন করা হয় দেশে। এ বছর এই সপ্তাহের প্রাক্কালেই দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়নের ঘোষণা দেয়া হবে বলে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। সেটা হবে এই দেশবাসীর জন্য একটি স্বর্ণোজ্জ্বল সাফল্য। শতভাগ বিদ্যুতায়নের ঘোষণার দিনটি হবে একটি ঐতিহাসিক দিন। তবে তার সঙ্গে যদি বিদ্যুৎ সংক্রান্ত যেসব সমস্যা রয়েছে, তার সমাধান হয়, মানুষ যদি সাবলীল বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করতে পারে- সেটা নিশ্চিত হলে সাফল্যের ষোলকলা পূর্ণ হবে। দুর্নীতি, অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার কারণে বিদ্যুৎ খাতে সরকারের সাফল্য অনেকাংশেই ম্রিয়মান হয়ে যাচ্ছে। এই ব্যাপারটির দিকে নজর দিতে হবে।

শেয়ার করুন

Developed by:Sparkle IT