প্রথম পাতা >> এজাহারভুক্ত ৭ জনকে চার্জশিট থেকে বাদ >> পলাতক ৫ গ্রেফতারি পরোয়ানা ও মালামাল ক্রোকের আবেদন

১১ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি: প্রকাশিত হয়েছে: ১৮-১০-২০২০ ইং ০৪:০৪:৩৬ | সংবাদটি ৭৯ বার পঠিত
Image

সিলেট বিভাগীয় ট্যাংক লরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রিপন (৪০) হত্যার ৩ মাস পর এ মামলার অভিযোগপত্র সম্প্রতি আদালতে দাখিল করা হয়েছে।। এতে এজাহার নামীয় ৬ জন ও আসামীদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে আরও পাঁচজনসহ মোট ১১ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৫ জন পলাতক রয়েছে। তবে, মামলার এজাহারভুক্ত ৭ জনকে আপাতত চার্জশিট থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।
মামলার চার্জশিটভুক্ত ১১ আসামির মধ্যে এজাহারনামীয় ছয় আসামি হলো, দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দি ১ নম্বর রোডের মৃত ফরিদের ছেলে ইজাজুল (২৮), মৃত ফারুক মিয়ার ছেলে রেজওয়ান হোসেন রিমু (২৮), মৃত আব্দুল করিম মনজ্জিরের ছেলে মুহিবুর রহমান মুন্না (৩০), মৃত আসদ্দর আলীর ছেলে মোহাম্মদ মোস্তফা (৪০), মৃত ফরিদ মিয়ার ছেলে ইসমাইল আহমদ (৩০) ও স্থানীয় সাঙ্গু গ্রামের মৃত কবির মিয়ার ছেলে নোমান আহমদ (৩৯)।
এছাড়া, অজ্ঞাতদের মধ্যে তদন্তে ও আসামিদের স্বীকারোক্তিতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় চার্জশিটে অভিযুক্ত পাঁচজন হলো, তারেক আহমদ, সাইদুল ইসলাম, অপু, সানি আহমদ ও সাগর হোসেন সাগর। দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের উপপরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. লোকমান হোসাইন সিলেটের ডাক’কে জানান, রিপন হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত কারাগারে থাকা আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ও বিভিন্ন সোর্স এবং স্থানীয় সাক্ষীদের জবানবন্দির ভিত্তিতে গত রোববার ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হয়েছে। এছাড়া, সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম (তৃতীয়) আদালতের বিচারক শারমিন খানম নিলার কাছে পলাতকদের গ্রেফতারি পরোয়ানা ও মালামাল ক্রোকের আদেশ ইস্যুর আবেদন করা হয়েছে।
তিনি আরও জানান, এ মামলার চার্জশিটভুক্ত ১১ আসামির মধ্যে মোহাম্মদ মোস্তফা, সাইদুল ইসলাম, অপু, সানি আহমদ ও সাগর হোসেন সাগর পলাতক রয়েছে। চার্জশিটভুক্ত অপর আসামীরা কারাগারে রয়েছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।
পুলিশ জানিয়েছে, এজাহারভুক্ত অপর সাতজনকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিতে চার্জশিটে সুপারিশ করা হয়েছে। তবে, হত্যার পর নিহতের স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় রেলওয়ে স্টেশন সিলেটের মাস্টারসহ তিন কর্মকর্তাকে মামলার এজাহারে আসামি করা হয়। তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলা থেকে নাম বাদ দেয়ার জন্য চার্জশিটে সুপারিশ করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। অব্যাহতি পাওয়া তিনজন হলেন, সিলেট রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার মতিন ভুঁইয়া (৫৫), রেলওয়ে আইডাব্লিউ শাখার আকবর হোসেন মজুমদার (৪৮) ও ওয়ার্কার সুপারভাইজার শহিদুল হক (৫৮)।
উল্লেখ্য, গত ১০ জুলাই রাত ১০টার দিকে নগরীর দক্ষিণ সুরমার বাবনা পয়েন্টে সিলেট ট্যাংক লরি শ্রমিক ইউনিয়ন, বিভাগীয় শাখার সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রিপনকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে হত্যার ঘটনা ঘটে।
ঘটনার পরদিন রিপনের স্ত্রী ফারজানা আক্তার তমা বাদী হয়ে দক্ষিণ সুরমা থানায় মামলা করেন। মামলায় ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে মামলায় সিলেট রেলওয়ের স্টেশন মাস্টারসহ একাধিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ অচেনা আরও ৫-৭ জনকে আসামি করা হয়।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • মুক্তিযোদ্ধা-ইউপি মেম্বার আহত থানায় মামলা : ইউপি মেম্বার গ্রেফতার
  • কোম্পানীগঞ্জে একদিনের ব্যবধানে দুটি ধর্ষণের ঘটনা
  • শায়েস্তাগঞ্জে বাস- মাইক্রোবাস সংঘর্ষে চালক নিহত
  • আজিজ আহমদ সেলিমের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোকপ্রকাশ অব্যাহত
  • মোগলাবাজার-চৌধুরীবাজার সড়কের বেহাল দশা
  • ওসমানী মেডিকেলের নতুন পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ব্রায়ান বঙ্কিম হালদার
  • দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড
  • এমসি কলেজে গণধর্ষণ অস্ত্র মামলায় রনি তিনদিনের রিমান্ডে
  • পুলিশ হেফাজতে রায়হানের মৃত্যু আদালতে ৩ কনস্টেবলের সাক্ষী জবানবন্দি
  • চিরনিদ্রায় শায়িত সাংবাদিক আজিজ আহমদ সেলিম
  • মধ্যবর্তী নির্বাচনের সুযোগ নেই:: সেতুমন্ত্রী
  • সিলেটে মাস্ক পরেন না অধিকাংশ মানুষ
  • এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তাকারীদের শনাক্তে কমিটি
  • বন্দরবাজার ফাঁড়ির মাসিক ‘বাণিজ্য’ ৭০ লাখেরও বেশি
  • মসজিদুল হারামে নামাজের অনুমতি দিল সৌদি আরব
  • প্রধানমন্ত্রী ও বিমান প্রতিমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি চেম্বারের কৃতজ্ঞতা
  • জেলা ও মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ আজ
  • কানাইঘাটে গাছের ডাল কাটতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু
  • আমেরিকায় সিলেটের রাজনীতিবিদ-ব্যবসায়ী মাওলানা সিরাজীর ইন্তেকাল
  • ব্রাজিলে দুর্বৃত্তের গুলিতে বড়লেখার যুবক নিহত
  • Image

    Developed by:Sparkle IT