সম্পাদকীয় প্রতিজ্ঞা রক্ষা করা হ”েছ সর্বোত্তম সত্য কথা। -হজরত আলী (রা.)

ন্যায্যমূল্যে পণ্য বিক্রি

প্রকাশিত হয়েছে: ১৬-০৬-২০১৭ ইং ০১:২০:১৯ | সংবাদটি ১৩৫ বার পঠিত

টিসিবির ন্যায্য মূল্যের পণ্য বাজারে পর্যাপ্ত নয়। চাহিদা থাকা সত্ত্বেও ‘সরবরাহ’ কম থাকায় গ্রাহকেরা পণ্য কিনতে পারছেন না। নিত্যপ্রয়োজনীয় নির্দিষ্ট কয়েকটি পণ্য জনসাধারণের কাছে বিক্রি করছে সরকারি প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ টিসিবি। মাহে রমজান উপলক্ষে এই কার্যক্রম শুরু হয় রমজানের আগে থেকেই সিলেটসহ সারাদেশে। প্রতিবছরই নির্দিষ্ট কয়েকটি পণ্য টিসিবির মাধ্যমে বিক্রি করা হয় জনসাধারণের কাছে। সরকার মূলত ভর্তুকি দিয়েই এইসব পণ্য বিক্রি করে বাজার মূল্য ¯ি’তিশীল রাখার জন্য। কিš‘ এই কার্যক্রমে নানা অনিয়ম-অব্যব¯’াপনা দেখা দেয় প্রতি বছরই। যে কারণে সরকারের একটি মহৎ উদ্দেশ্য শত ভাগ সফল হয় না।
বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম এমনিতেই বেশি; তার ওপর রমজান মাসে পণ্যের দাম বেড়ে যায় আরেক দফা। ব্যবসায়ীরা সারা বছরই বসে থাকে মাহে রমজান ও ঈদ উপলক্ষে অধিক মুনাফা অর্জনের আশায়। এই সময়ে তারা নানা অজুহাতে খাদ্যপণ্যের দাম বাড়িয়ে দেয়। অনেক ক্ষেত্রে কোনো কারণ ছাড়াই বাড়ানো হয় দাম। এতে বেড়ে যায় রোজাদারদের দুর্ভোগ। পরি¯ি’তি বিবেচনা করে সরকার জনসাধারণের কাছে ন্যায্য মূল্যে চিনি, ছোলা, তেল, খেজুর, ডাল ইত্যাদি পণ্য বিক্রির উদ্যোগ নেয়। এতে প্রতি বছর সরকারকে বিপুল পরিমাণ টাকা ভর্তুকি দিতে হ”েছ। কিš‘ নানা কারণে এই কার্যক্রম খুব একটা সুফল বয়ে আনছে না। একেতো সরকারের নজরদারির অভাব, তার ওপর রয়েছে ডিলারদের নানা কারসাজি।
দেশের বাজার থেকে কেনা অথবা বিদেশ থেকে আমদানিকৃত উল্লিখিত খাদ্যপণ্যগুলো বাজার মূল্য থেকে কম দামে বিক্রি করা হয় জনসাধারণের কাছে। কিš‘ অনেক সময়ই সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে পণ্য বিক্রির অভিযোগ ওঠে ডিলারদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ রয়েছে ন্যায্য মূল্যের দ্রব্য কালোবাজারে বিক্রি। ইতোপূর্বে বিভিন্ন সময় সরকারের প্রদত্ত নীতিমালা অমান্য করার দায়ে নির্দিষ্ট সংখ্যক ডিলারের লাইসেন্স বাতিল হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। আবার অনেক ডিলার লাভ কম হওয়ার অজুহাতে পণ্য উত্তোলন করছেন না। অথচ তিনি যথারীতি টিসিবির ডিলারশীপ নিয়ে দিব্যি বসে আছেন। আর ক্রেতারা বঞ্চিত হ”েছন ন্যায্য মূল্যের খাদ্যদ্রব্য প্রাপ্তি থেকে।
মাহে রমজান শেষ পর্যায়ে। সামনে ঈদুল ফিতর। এই সময় টিসিবির পণ্য বিক্রি কার্যক্রম জোরদার করা গেলে অন্তত সীমিত আয়ের মানুষেরা উপকৃত হবে। দীর্ঘদিন ধরে টিসিবির সঙ্গে চলে আসা ডিলারদের মতবিরোধের কারণে পুরো কার্যক্রমে দেখা দিয়েছে ¯’বিরতা। ডিলাররা বলছেন পণ্য বিক্রিতে লাভ কম; আর টিসিবির বক্তব্য হ”েছ, পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে ডিলারদের যথাযথ কমিশন দেয়া হ”েছ। এই বিরোধের অবসান হওয়া জরুরি। সরকার নির্ধারিত কমিশনে সরকারি আইন মেনে যারা ন্যায্যমূল্যের পণ্য বিক্রি করতে আগ্রহী তাদেরকেই ডিলার নিয়োগ দেয়া উচিত।


শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT