স্বাস্থ্য কুশল

জ্বর হলে কী খাবার খাবেন

ডা. আলমগীর মতি প্রকাশিত হয়েছে: ০১-০১-২০১৮ ইং ০২:১৪:০৭ | সংবাদটি ১৪৩ বার পঠিত

জ্বরে রোগীরা কিছুই খেতে চায় না বা পারে না। শিশু ও বয়স্কদের এ সমস্যা বেশি হয় এবং রোগী ক্রমাগত দুর্বল হয়ে পড়ে ও নানাবিধ জটিলতা দেখা দেয়।
জ্বর হলে শরীরে ক্যালরির চাহিদা বাড়ে, ফলে বিপাক বেড়ে যায় ও রোগীর পুষ্টির দরকার হয়। রুচি কমে গেলে এমন খাবার বেছে নিন, যা অল্প খেলেও বেশি ক্যালরি পাওয়া যায়।
জ্বরে প্রচুর তরল পান করতে হয়, দিনে কমপক্ষে আড়াই লিটার। পানির পাশাপাশি লবণ ও খনিজ উপাদানসমৃদ্ধ তরল যেমন- ডাবের পানি, ওরস্যালাইন, লেবু-লবণের শরবত, ফলের রস পান করা উচিত। এর ফলে রক্তচাপ হ্রাসের ঝুঁকি কমবে, অতি মিষ্টি পানীয় খেলে বমির উদ্রেক হতে পারে।
তাই বাজারের কোমল পানীয় বা আইসক্রিম সহজে পিপাসা মেটায় না।
অরুচি বা বমি ভাবের জন্য তেল-মসলাযুক্ত খাবার, ফাস্টফুট ইত্যাদি না খাওয়াই ভালো।
খাবারের তালিকায় পর্যাপ্ত শর্করা যেমন ভাত, জাউভাত, ওটমিল ইত্যাদি রাখুন। প্রোটিন যেমন- দুধ, দই, মাছ বা মুরগির মাংস, স্যুপ রাখুন। জ্বরে আক্রান্ত রোগীর কিছু খেলেই বমি আসে, তারা হালকা শুকনো খাবার খাবেন। যেমন বিস্কুট, মুড়ি ইত্যাদি। আদা-চা, গ্রিন-টি বা শুকনো আদা বমি ভাব কমায়। এ সময় ফল বেশি করে খেতে হবে।
[হারবাল গবেষক ও চিকিৎসক]

শেয়ার করুন
স্বাস্থ্য কুশল এর আরো সংবাদ
  • থাইরয়েড সমস্যা ও সমাধান
  • আমের বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্যগুণ
  • এলোভেরা ও প্রপোলিস : দাঁতের যতেœ চমৎকার এক জুটি
  • অর্জুনের এত্তো গুণ
  • রোগ প্রতিরোধে আমলকী
  • ঔষধি গুণের ইলিশ
  • ওমেগা-থ্রি : মানবদেহে এর গুরুত্ব
  • নিরাপদ মাতৃত্ব রক্ষায় প্রয়োজন প্রশিক্ষিত ও দক্ষ মিডওয়াইফ
  • রক্ত স্বল্পতা : জনস্বাস্থ্যের প্রধান সমস্যা
  •  তাফসিরুল কুরআন
  • দেশে দেশে রোজা
  • যাকাত দারিদ্র বিমোচনের হাতিয়ার
  • এতেকাফ ঈমানি তারবিয়াতের পাঠশালা
  • এলার্জির চিকিৎসার প্রয়োজনীয়তা
  • রোগ প্রতিরোধে তেঁতুল
  •  শিশুর প্রস্রাবে ইনফেকশন
  • ত্বকের সোরিয়াসিস
  • হেঁচকি উঠলে কী করবেন
  • কানে পানি জমে গেলে
  • গরমে ত্বকে র‌্যাশ উঠলে করণীয়
  • Developed by: Sparkle IT