মহিলা সমাজ

রেসিপি

প্রকাশিত হয়েছে: ০২-০১-২০১৮ ইং ০২:১৬:৪৪ | সংবাদটি ১৪৩ বার পঠিত

 গাজরের লাড্ডু
উপকরণ :
ডাক রেসিপি : গ্রেটেড গাজর ১ কেজি, চিনি ২ কাপ, তরল দুধ ২ লিটার, গুড়া দুধ ২৫০গ্রাম, আইসিং সুগার ৪ টবিল চামচ, তেজপাতা ৫/৬ টি, এলাচ ৭/৮ টি, দারচিনি ৩/৪ টুকরা, ছানা ২ কাপ, কাজু/কাঠ বাদাম গুড়া ১/২ কাপ, ঘি ১/২ কাপ।
যেভাবে করবেন :
একটি ননস্টিক কড়াইয়ে দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা দিয়ে দুধ জাল করে অর্ধেক করে নিন। এবার তেজপাতা, এলাচ উঠিয়ে গাজর দুধে দিয়ে শেদ্ধ করে ফেলুন। এরপর একে একে ঘি, চিনি, বাদাম দিন। অনবরত নাড়তে হবে। তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে ২ টেবিল চামচ গুড়া দুধ রেখে বাকিটুকু ভালোভাবে গাজরের সাথে মিশিয়ে নিন। এখন আইসিং সুগার ও গুড়া দুধের মিশ্রণ করে নিন। এবার লাড্ডু বানিয়ে ওই মিশ্রণে গড়িয়ে নিন। হয়ে গেল মজাদার গাজরের লাড্ডু।
কেউ চাইলে নাড়কেল কোড়া দিতে পারেন।

৪ মিনিটেই তৈরি করুন রসমালাই
ডাক রেসিপি : আপনাদের জন্য এখন দেওয়া হচ্ছে একটি মজার মিষ্টির রেসিপি। এটি হলো রসমালাই এর রেসিপি। কিন্তু চিরায়ত রসমালাই এর থেকে এই রসমালাই তৈরিতে সময় লাগবে অনেক কম। তাহলে দেখে নিন আলপনা হাবিবের মাত্র ৪ মিনিটে রসমালাই তৈরির রেসিপিটি।
উপকরণ :
গুঁড়ো দুধ ২ কাপ, পানি ২ কাপ, চিনি ৩/৪ কাপ, ময়দা ১ টেবিল চামচ, এলাচ গুঁড়ো ১ চিমটি, ডিম ১টি, ঘি ১/২ কাপ, বেকিং পাউডার ১ টেবিল চামচ, জাফরান পরিমাণমত, গোলাপ জল ৩/৪ কাপ, মাওয়া ১/৪ কাপ, পেস্তাবাদাম সামান্য।
প্রণালী :
১) প্রথমেই রসমালাইয়ের জন্য দুধ ফুটতে দিন। ১ কাপ গুঁড়ো দুধ ২ কাপ পানিতে মিশিয়ে একটি প্যানে চুলায় দিন। এতে এক কাপের চার ভাগের তিন ভাগ চিনি মিশিয়ে দিন।
২) এবার রসমালাইয়ের মিষ্টিগুলো তৈরির জন্য ১ কাপ গুঁড়ো দুধ, ১ টেবিল চামচ ময়দা, এক চিমটি এলাচ গুঁড়ো, ১ টেবিল চামচ বেকিং পাউডার একসাথে নিন একটি বড় পাত্রে। এগুলোকে ভালো করে মিশিয়ে নিন।
৩) আরেকটি ছোট পাত্রে ঘিয়ের সাথে ডিমটাকে ভালো করে ফেটে নিন।
৪) গোলাপ জলে অল্প করে জাফরান ভিজিয়ে রাখুন।
৫) এবার গুঁড়ো দুধের শুকনো মিশ্রনের সাথে ডিম ও ঘিয়ের মিশ্রণটি দিন। এটাকে খুব ভালো করে মেখে ডো তৈরি করে নিন। এই ডো থেকে ছোট ছোট রসমালাইয়ের মিষ্টি তৈরি করে নিন।
৬) মাওয়া অল্প করে পানিতে গুলে নিন। চুলায় দুধ ফুটে এলে এতে মাওয়া দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই দুধে মিষ্টিগুলো দিয়ে দিন। ঢাকনা চাপা দিয়ে ফুটতে দিন ৪ মিনিট।
৪ মিনিটের মাঝে ফুলে উঠবে মিষ্টিগুলো। এবার এই দুধের ওপরে জাফরান মেশানো গোলাপ জল দিয়ে দিন। চুলা বন্ধ করে দিন। একটি সুন্দর পাত্রে নিয়ে ওপরে পেস্তাবাদাম কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করতে পারেন রসমালাই।

মুলা শাকের বড়া
ডাক রেসিপি : মূলা কিংবা মূলা শাকের গন্ধ অনেকেই সহ্য করতে পারেন না। অনেকে আবার বাসায় শাক রান্না হলে একশো হাত দূরে থাকেন। যাদের মূলা কিংবা মূলা শাকের গন্ধে এলারজি আছে, আমাদের আজকের রেসিপি বিশেষ ভাবে তাদের জন্য রইলো।
যা প্রয়োজন :
মূলা শাক কুচি ২ আঁটি (বাজারের ২ আঁটি মূলা শাক গোড়া ফেলে কুটে-টুটে যা থাকে), কুচো চিংড়ি ১/২ কাপম, পিয়াজ কুচি ১/৪ কাপ, কাঁচামরিচ কুচি ১০-১২টি (ঝাল বুঝে), হলুদ/মরিচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ করে, জিরা গুড়া ১ চা চামচ, চালের গুঁড়া ১ মুঠি, সরিষার তেল ভাজার জন্যে, লবন স্বাদমতো।
যেভাবে করবেন :
শাক কুচি করে ধুয়ে নিন। এবার পানি ফুটিয়ে শাক ভাপ দিয়ে ছেঁকে নিন। ঠান্ডা হলে চিপে চিপে পানি নিংড়ে নিন।
এবার তেল ছাড়া সব উপকরণ এক সাথে ভালো করে মাখিয়ে নিন। প্যানে অল্প তেল গরম করে বড়ার আকারে গড়ে শ্যালো ফ্রাই করে নিন। ভাজার সময় আঁচ কমিয়ে ভাজবেন। দুই পিঠ সোনালী রঙ করে সবগুলো ভেজে নিন।
গরম গরম পাকোড়া হিসাবে পরিবেশন করুন অথবা গরম সাদা ভাতের সাথেও পরিবেশন করতে পারেন মজাদার মূলা শাকের বড়া।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT