মেয়র পদে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস

কমলগঞ্জ পৌরসভায় জমে উঠেছে প্রচারণা

সুব্রত দেবরায় সঞ্জয়, কমলগঞ্জ থেকে: কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন বেশ জমে উঠেছে। মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের গণসংযোগ ও প্রচার প্রচারণায় মুখরিত এখন পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড। চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনী উত্তাপ। ভোটার কিংবা শুভাকাক্সিক্ষরা চায়ের দোকানে বসে ইচ্ছেমতো নির্ধারণ করছেন মেয়র ও কাউন্সিলর। আসন্ন নির্বাচনে মেয়র পদে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গেছে। আগামী ১৬ জানুয়ারি এ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
গত ৩০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে ভোট প্রার্থনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রার্থীরা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। গোটা এলাকায় এখন ছেয়ে গেছে নির্বাচনী পোস্টার ও ব্যানারে। মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণায় জমজমাট এখন পৌর এলাকা। প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করতে নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ছুটে যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। সময় কম থাকায় প্রার্থীরা রাত-দিন প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। সাথে প্রার্থীদের সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণার চিত্র ও বিগত দিনের উন্নয়নের কর্মকান্ডগুলো তুলে ধরতে সরব ভূমিকা পালন করছেন।
এদিকে, ভোটকে কেন্দ্র করে ভোটারদের মধ্যেও বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। উৎসবে ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে প্রার্থীদের বিভিন্ন আঙ্গিকের প্রচারণা। প্রচারণার অংশ হিসেবে বেলা ২টা থেকে শুরু হয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত চলে মাইক সমেত প্রচারণা। ঢোল, কাঁসা, করতাল, বাঁশি, একতারাসহ বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র নিয়ে গানের মাধ্যমে চলে প্রচারণা। বিভিন্ন রঙ ঢঙের গান শুনে আনন্দ পাচ্ছেন সাধারণ ভোটাররা। কখনও আবার বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের গানের সাথে নাচতেও দেখা যায়। সব মিলিয়ে জমে উঠেছে কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের নির্বাচনী প্রচারণা।
পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে ৪ জন মেয়র, ৩১ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ১১ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরসহ মোট ৪৪ জন প্রার্থী চূড়ান্ত ভোট যুদ্ধে নেমেছেন। ব্যালট পেপারে ভোট গ্রহণ হবে এ নির্বাচনে।
মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চার প্রার্থী হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো: জুয়েল আহমেদ (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবুল হোসেন (ধানের শীষ), আওয়ামী লীগের দু’বিদ্রোহী প্রার্থী মো: আনোয়ার হোসেন (নারিকেল গাছ) ও হেলাল মিয়া (জগ)।
এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে।
ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, এবার মেয়র পদে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সাথে দলের অপর ২ প্রার্থী লড়ছেন মেয়র পদে। আওয়ামী লীগের ৩ প্রার্থীই শক্ত অবস্থানে রয়েছেন। তবে কিছুটা নিরব প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির প্রার্থী। এবার কে হতে পারেন পৌরসভার মেয়র তা নিয়ে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে হাট বাজারগুলোতে চলছে সরব আলোচনা। সচেতন ভোটাররা, এবারের নির্বাচনে সৎ ও যোগ্য ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে চান ।
কমলগঞ্জ পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের মোট ভোটার ১৩ হাজার ৯০৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬ হাজার ৮শ’ ৮৭ জন ও মহিলা ৭ হাজার ১৮ জন। ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি সেন্টারের ৪২টি কক্ষে এবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।