শেষের পাতা মৌলভীবাজারের প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা

আজিজুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ

মৌলভীবাজার থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা : প্রকাশিত হয়েছে: ৩০-১০-২০২০ ইং ০৩:২৯:৩৪ | সংবাদটি ১৩৪ বার পঠিত

 মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বর্ষীয়ান রাজনীতিবীদ ও বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর প্রয়াত আলহাজ্ব আজিজুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতা পুরস্কার গ্রহণ করেছেন তাঁর সহোদর বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দিন। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক পদক তুলে দেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এই পুরস্কারে ভূষিতদের হাতে পদক তুলে দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।
স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত আজিজুর রহমান করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চলতি বছরের ১৮ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন।
আজিজুর রহমান ছিলেন সাবেক গণপরিষদ সদস্য, সাবেক ২ বারের সংসদ সদস্য, সাবেক হুইপ, বাংলাদেশ সংবিধানের অন্যতম প্রণেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগ এর সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। সর্বশেষ মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি মৌলভীবাজার ইউনিট এর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।
প্রয়াত আজিজুর রহমান একজন সাংস্কৃতিক ও নাট্যকর্মী থেকে নিজের সততা, প্রজ্ঞা ও দূরদর্শিতায় হয়ে উঠেছিলেন দেশ-মাটি ও গণমানুষের নেতা। স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট রাজনৈতিক সহচর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও ৪নং সেক্টরের মুক্তিযুদ্ধকালীন মৌলভীবাজার জেলা রাজনৈতিক সমন্বয়কারী ছিলেন।
আজিজুর রহমান ১৯৪৩ সালে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের গুজারাই গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৫৯ সালে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মেট্রিক, ১৯৬২ সালে মৌলভীবাজার কলেজ থেকে আইকম এবং হবিগঞ্জের বৃন্দাবন কলেজ থেকে বি-কম পাশ করেন। তিনি ১৯৭০ সালের নির্বাচনে গণপরিষদ সংসদ সদস্যও নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৮৬ ও ১৯৯১ সালে টানা ২ বার মৌলভীবাজার-৩ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ ও একবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক নির্বাচিত হন। শুধু মুক্তিযোদ্ধা নয় তিনি একাধিক বার পাকবাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন এবং পাক হানাদারদের হাতে নির্যাতনের শিকার হন। জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, ১৪ দলের জেলা সমন্বয়কসহ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন আজিজুর রহমান। ছিলেন গণপরিষদ সদস্য এবং বাংলাদেশের সংবিধানে স্বাক্ষরকারী। তিনি ছিলেন সরাসরি বঙ্গবন্ধু প্রভাবিত রাজনীতিবিদ, এই অঞ্চলের অহিংস ও সৌহার্দ্যপূর্ণ রাজনৈতিক ও সামাজিক বটবৃক্ষ।
সর্বশেষ তিনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত করোনা মহামারিতে ত্রাণ বিতরণ, বন্যা, নদী ভাঙ্গনসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে রাতদিন মানুষের সহায়তায় নিজের জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন।

 

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • করোনা সচেতনতা মহানগর বিএনপির মাস্ক বিতরণ
  • সরকার ধান চাষের পাশাপাশি রবি শস্য ফলনের প্রতি জোর দিচ্ছে :মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি
  • ছাতকের জাহিরভাঙ্গা-বসন্তপুর বেড়িবাঁধে ক্ষতিগ্রস্ত হবার আশঙ্কা ১৬ গ্রামবাসীর
  • সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার বিদেশি কয়েদীদের মধ্যে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নিত্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র প্রদান
  • ছাতকে ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও স্যানিটারি ল্যান্ড ফিল্ড
  • সিলেটে বাড়ছেই করোনা রোগী
  • দেশে করোনায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯০৮
  • ‘গোয়াইনঘাটে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও অবৈধ রয়েলিটি বন্ধ না হলে আন্দোলন’
  • স্থানীয় সরকার বিভাগকে আরো শক্তিশালী করা হচ্ছে : মুহিবুর রহমান মানিক এমপি
  • নবীগঞ্জে আগুনে পুড়ে শারীরিক প্রতিবন্ধী নারীর মৃত্যু
  • সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকেরের মৃত্যুতে লিডিং ইউনিভার্সিটির শোক
  • মৌলভীবাজারে মাস্ক না পরায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা
  • কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি’র ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন
  • ধর্মপাশায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য ৩২টি গৃহ নির্মিত হচ্ছে
  • তাহিরপুরে কৃষকদের মধ্যে বীজ বিতরণ
  • মাধবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৫০ শয্যায় উন্নীত হওয়ার পরও সুফল পাচ্ছেন না এলাকাবাসী
  • জগন্নাথপুরে কৃষি প্রণোদনা পাচ্ছেন ১১শ’ কৃষক
  • মণিপুরী সংস্কৃতির চর্চার আশানুরূপ অগ্রগতি হচ্ছে না --সন্দ্বীপ কুমার সিংহ
  • ধর্মপাশায় হাওর রক্ষা বাঁধের জরিপ কাজ শুরু
  • আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয় : মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি
  • Developed by: Sparkle IT