সম্পাদকীয় ধ্বংস এমন প্রতিটি লোকের জন্য, যে ধিক্কার দেয় ও নিন্দা করে বেড়ায়। -আল হুমাযাহ।

বিদ্যুৎকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ড

প্রকাশিত হয়েছে: ১৯-১১-২০২০ ইং ০৯:৩২:০৭ | সংবাদটি ১৩১ বার পঠিত

প্রথমে বিদ্যুতের লোডশেডিং বলেই মনে করেন নগরবাসী। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই জনে জনে জানাজানি হয়ে যায় বিদ্যুতের ‘মহাবিপর্যয়ের’ কথা। বলা যায় স্মরণকালের ভয়াবহ বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটেছে সিলেটে গত মঙ্গলবার। সকালে নগরীর কুমারগাঁও বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে আকস্মিক অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়। এতে বিদ্যুৎ সরবরাহে বিপর্যয় ঘটে সিলেট মহানগরীসহ সিলেট ও সুনামগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলা। বিদ্যুৎবিহীন অন্ধকার রজনী পার করেন লাখ লাখ মানুষ। ব্যবসা বাণ্যিজ্য, জীবন জীবিকায় ঘটে চরম বিপর্যয়। প্রায় দেড় ঘন্টার এই ভয়াবহ আগুনে বিদ্যুৎকেন্দ্রের শতাধিক কোটি টাকার ক্ষতি হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত কী, কিংবা বিদ্যুৎ ব্যবস্থা কবে স্বাভাবিক হবে- এই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কিছু বলছেন না সংশ্লিষ্টরা। ঘটনার তদন্তে গঠিত হয়েছে দু’টি কমিটি।
এই পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা যায়, সকালে কুমারগাঁও ১৩২/৩৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অভ্যন্তরে হঠাৎ কুণ্ডুলী পাকিয়ে ধোঁয়া উড়তে থাকে। আগুন আস্তে আস্তে ভয়াবহ আকার ধারণ করে। পরে দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজে লেগে যায়। এক পর্যায়ে আগুন নিভে যায় ঠিকই, তবে ততোক্ষণে যা সর্বনাশ হওয়ার হয়ে গেছে। ক্ষতি হয়েছে সম্পদের, দুর্ভোগ হয়েছে লাখ লাখ সাধারণ মানুষের। আমরা যেকোন দুর্ঘটনায়ই বলতে শুনি- ‘দুর্ঘটনা বলে কয়ে আসে না, দুর্ঘটনা তো দুর্ঘটনাই।’ কথাটি উড়িয়ে দেয়া যায় না। কিন্তু তারপরেও কিছু কথা থেকে যায়। মানে এই ধরণের বড়মাপের দুর্ঘটনার পরে জনমনে কিছু কিছু প্রশ্নের উদ্রেক হয়ে থাকে। লোকজন বলাবলি করেন অনেককিছুই। যেমন উল্লিখিত দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে যেটা বলছেন মানুষ সেটা হলো- দেশের সর্বোচ্চ জরুরী অগ্রাধিকারমূলক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম এই বিদ্যুৎকেন্দ্রে নিয়োজিত সরকারি কর্মচারী-স্টাফদের নজরদারি থাকা সত্ত্বেও কীভাবে ঘটনো এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনা? তাছাড়া, যখন সরকারের বিদ্যুৎখাতে উন্নয়নের সাফল্য অতীতের সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে, তখন এই ধরণের দুর্ঘটনা সত্যি অনেক ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।
বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘটিত অগ্নিকান্ডের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হোক, উদঘাটিত হোক এর কারণ। আমরা আশা করি, উল্লিখিত তদন্ত কমিটিগুলো তাদের প্রতিবেদনে অনুরূপ ঘটনার পুণরাবৃত্তি রোধেও যথাযথ পরামর্শ দেবেন। দেশ বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রায় স্বয়ংসম্পূর্ণ। বিদ্যুতের ক্ষেত্রে অতীতের বীভৎস দিনগুলোতে আমরা ফিরে যেতে চাই না। আর তাই বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বিতরণে যাতে কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না হয়, সেদিকে নজর দিতে হবে।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT